বাংলাদেশের প্রথম ব্যান্ডের ওপর তথ্যচিত্র


শোবিজ ডেস্ক: স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম ব্যান্ড ‘আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভার্স’-এর গল্প অনেকেরই অজানা। সেই গৌরবময় ইতিহাস নিয়ে তৈরি হলো একটি তথ্যচিত্র। ব্যান্ডসংগীতের অমূল্য এই দলিলচিত্রের নাম ‘মেন ফ্রম সেভেন্টি টু’। এটি নির্মাণ করেছেন আলোকচিত্রী ইমতিয়াজ আলম বেগ।

দেশের প্রথম ব্যান্ডের অজানা অধ্যায় নিয়ে সাজানো ১৯ মিনিট ব্যাপ্তির তথ্যচিত্রটি প্রকাশিত হয়েছে জি-সিরিজের ইউটিউব চ্যানেলে। ‘আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভার্স’-এর প্রথম অ্যালবামের গানগুলোও শোনা যাবে এখানে।

কী আছে ‘মেন ফ্রম সেভেন্টি টু’তে দেশের প্রথম ব্যান্ডের পাঁচ সদস্যকে একত্রিত করে তাদের মুখে ব্যান্ডের ইতিহাস তুলে ধরা হয়েছে এতে। একইসঙ্গে ‘আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভার্স’-এর লাইভ কয়েকটি গানের অংশও রয়েছে এ আয়োজনে।

১৯৭২ সালের জানুয়ারিতে কয়েকজন তরুণ গিটার হাতে গড়ে তোলেন ‘আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভার্স’ নামে একটি রক ব্যান্ড। এরপর মার্চে হোটেল পূর্বাণীতে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম কনসার্টে সংগীত পরিবেশন করেন তারা। সত্তর দশকে ব্যান্ডটি ছিল তুমুল জনপ্রিয়। মূলত বিদেশি বিখ্যাত সব গান গাইতেন তারা। ১৯৭৪ সালের দুর্ভিক্ষের সময় বেশকিছু চ্যারিটি শো করে অর্থতহবিল সংগ্রহে অসাধারণ ভূমিকা রাখে ‘আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভার্স’। ‘ধীরে বহে মেঘনা’সহ বেশ কয়েকটি ছবির আবহসংগীতের কাজও করেছেন তারা।

একসময় ব্যান্ডটির অন্যতম সদস্য সাজ্জাদ আলী সুইডেন চলে গেলে অন্য সদস্যরাও একে একে কানাডা কিংবা অন্য দেশে পাড়ি জমান। রয়ে গেলেন কেবল ওমর খালেদ রুমি। কেটে গেলো দীর্ঘ সময়। ২০১১ সালে আবার সবাই এক হলেন রাজধানীর গুলশান ক্লাবে একটি অনুষ্ঠানে। হতবাক হয়ে যাওয়ার মতো তথ্য হলো, তাদের প্রথম অ্যালবাম বাজারে এসেছে প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ ৪৫ বছর পর ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে!

ইমতিয়াজ আলম বেগ বলেছেন, “আমার বাবা (দেশের আলোকচিত্র আন্দোলনের পথিকৃৎ একুশে পদকপ্রাপ্ত মঞ্জুর আলম বেগ) তার সব ছাত্রকে প্রায়ই বলতেনÑ‘টুকরো টুকরো ছবি দিয়ে পৃথিবী সংরক্ষণ করা যায়।’ আমি চেষ্টা করেছি, টুকরো টুকরো ছবি দিয়ে বাংলাদেশের রক মিউজিককে সংরক্ষণ করতে।”

বাংলাদেশের ব্যান্ডসংগীতের ফটোগ্রাফির সঙ্গে ইমতিয়াজ আলম বেগের নাম ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এক্ষেত্রে তাকে বলা যায় পথিকৃৎ। বাংলা ব্যান্ডের স্বর্ণযুগ নব্বইয়ের দশক ছিল তার ফ্রেমে বন্দি। নগরবাউল, মাইলস, এলআরবি, রেনেসাঁ, ফিলিংস, অর্থহীন, আর্কসহ প্রায় সব ব্যান্ডের কনসার্ট থেকে শুরু করে অ্যালবাম কাভার, পোস্টার এবং ব্যান্ড প্রোফাইলে ব্যবহার করা হয়েছে তার তোলা ছবি। সংগীতশিল্পী কবীর সুমন তাকে নিয়ে ‘বাংলার ছেলে ছবির খেয়ালে/ হেলান দিয়েছে গানের দেয়ালে’ কথার একটি গানও লিখেছেন।