বাংলাদেশ সীমান্ত বেষ্টনী  নির্মাণ করছে মিয়ানমার

শেয়ার বিজ ডেস্ক : মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের বাংলাদেশ সীমান্তে বেষ্টনী দেওয়াসহ সংশ্লিষ্ট কাজের জন্য দেড় কোটি ডলার বাজেট বরাদ্দ দিয়েছে দেশটির পার্লামেন্ট। গত আগস্টে মিয়ানমারে জাতিগত নিধনযজ্ঞের ভয়াবহতায় বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ফেরত নেওয়ার চূড়ান্ত প্রস্তুতি ঘোষণার কয়েক দিনের মাথায় গত বৃহস্পতিবার এ বাজেট পাস হয়। খবর এপি।

মিয়ানমারের সংসদ সদস্য মিও যাও অং শুক্রবার বলেন, স্বরাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা ও সীমান্তবিষয়ক মন্ত্রণালয় যৌথভাবে বাজেটটি প্রস্তাব করে। তিনটি মন্ত্রণালয়ই সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রণ করে।

মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জেনারেল অং সোয়ে জানান, রাখাইন রাজ্যে ২৯৩ কিলোমিটার সীমান্তের মধ্যে ইতোমধ্যে ২০২ কিলোমিটার সীমান্তে বেষ্টনী নির্মাণ করা হয়েছে।

গত আগস্টে মিয়ানমারের রাখাইনে নিরাপত্তা বাহিনীর তল্লাশি চৌকিতে হামলার ঘটনায় আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি বা  আরসাকে দায়ী করে দেশটির কর্তৃপক্ষ। ওই হামলাকে পুঁজি করে ২৫ আগস্ট থেকে মিয়ানমারে বসবাসরত রোহিঙ্গাদের ওপর নতুন করে জাতিগত নিধনযজ্ঞ শুরু করে দেশটির সেনাবাহিনী। স্থানীয় উগ্রপন্থি বৌদ্ধদের সহায়তায় চালানো হয় খুন, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হামলার ভয়াবহতায় প্রতিবেশী বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা। এ ঘটনাকে ‘জাতিগত নিধনের পাঠ্যপুস্তকীয় উদাহরণ’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে জাতিসংঘ।

আন্তর্জাতিক চাপের মুখে রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর চুক্তি সম্পন্ন হলেও তা কার্যকরের বিষয়টি এখনও প্রক্রিয়াধীন। গত ১৬ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ তালিকা থেকে সাড়ে ছয় হাজার রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে নিতে ২৯ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিক পদক্ষেপ নেবে মিয়ানমার। বিপরীতে মিয়ানমারের মন্ত্রী ড. উইন মিয়াত জানান, সরকার খতিয়ে দেখবে তারা আদৌ মিয়ানমারে বাস করত কিনা এবং কোনো সহিংস কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিল কিনা।