বিশ্ব বাণিজ্য

বাণিজ্য উত্তেজনায় এশিয়ার পুঁজিবাজারে পতন

শেয়ার বিজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে চলমান বাণিজ্য উত্তেজনার প্রভাব পড়ছে এশিয়ার পুঁজিবাজারে। গতকাল মঙ্গলবার এ অঞ্চলের বাজারের প্রধান সূচকগুলোয় নিন্মমুখী প্রবণতা দেখা গেছে। এছাড়া ডলারের বিনিময়মূল্য কমেছে এবং বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম বেড়ে ছয় বছরের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছেছে। খবর: রয়টার্স।
এশিয়ার পুঁজিবাজারের মধ্যে জাপানের নিক্কেই সূচক কমেছে দশমিক ৪৩ শতাংশ। চীনের সাংহাই ও হংকংয়ের হ্যাংসেং সূচক কমেছে যথাক্রমে দশমিক ৮৭ শতাংশ ও ১ দশমিক ১৫ শতাংশ।
বৈশ্বিক বাজারে অস্থিরতার পেছনে দুটি কারণ চিহ্নিত করেছেন বিশ্লেষকরা। প্রথমত, ফেডের সুদহার কর্তনের সম্ভাবনা। দ্বিতীয়ত, ইরান ইস্যুতে সৃষ্ট ভূরাজনৈতিক উত্তেজনা। এর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে চলা চীন-যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্যযুদ্ধ তো আছেই। সর্বশেষ বৈঠক শেষে ফেডপ্রধান জেরোম পাওয়েল বলেন, ‘ফেডের নীতিতে পরিবর্তন আনার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে আগামীতে বিদ্যমান সুদহার কর্তনের পথ সুগম হয়েছে।’
আগামী বৃহস্পতিবার সম্মেলনে যোগ দিতে তিন দিনের সফরে জাপানে যাচ্ছেন ট্রাম্প। অন্যদিকে ২০১৩ সালে ক্ষমতায় আসার পর প্রথমবারের মতো জাপান সফর করছেন শি জিনপিং।
গত মঙ্গলবার ট্রাম্প জানিয়েছেন, জাপানের ওসাকায় সম্মেলনের সাইডলাইনে দুই নেতার বৈঠকের জন্য এরই মধ্যে প্রস্তুতি শুরু করতে যাচ্ছে উভয় দেশের কর্তৃপক্ষ। এর আগে চীনের পক্ষ থেকে দুই নেতার সম্ভাব্য বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করা হলেও ভেন্যু নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানায় দেশটির কর্তৃপক্ষ।
টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে ট্রাম্প লিখেছেন, চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে টেলিফোনে চমৎকার কথা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে জাপানে জি-টোয়েন্টি সম্মেলনে আমাদের একটি বিশদ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকের আগে আমাদের টিম এ ব্যাপারে আলোচনা শুরু করবে।
এমন সময় দুই নেতার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে, যখন ট্রাম্পের বাণিজ্যযুদ্ধের ফলে উভয় দেশের সম্পর্কে অস্বস্তি বিরাজ করছে। চীনের সঙ্গে বিপুল বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনার লক্ষ্য নিয়ে গত বছর থেকে বেইজিংয়ের রফতানি পণ্যের ওপর অতিরিক্ত শুল্কারোপ শুরু করে ট্রাম্প প্রশাসন। ‘মেক আমেরিকা গ্রেট অ্যাগেইন’ আর ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নামের কথিত সংরক্ষণশীল নীতির ঘোষণা দিয়ে ক্ষমতায় আসা ট্রাম্প প্রশাসনের এ পদক্ষেপের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে বেইজিংও মার্কিন পণ্যের ওপর অতিরিক্ত শুল্কারোপ শুরু করে। এ বাণিজ্যযুদ্ধ নিরসনে চলতি বছরের মে মাসে ওয়াশিংটন-বেইজিং আলোচনায় বসলেও কোনো চুক্তি ছাড়াই শেষ হয় তা। আসন্ন ট্রাম্প-শি জিনপিং বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হতে পারে বলে প্রতীয়মান হচ্ছে।

 

সর্বশেষ..