বাসেলকে উড়িয়ে দিল সিটি জুভেন্টাস-টটেনহ্যামের ড্র

 

ক্রীড়া ডেস্ক সময়টা দারুণ কাটছে সার্জিও আগুয়েরোর। কয়েকদিন আগে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে এ আর্জেন্টাইন করেন হ্যাট্রিটকসহ চার গোল। গত পরশুও সেই ফর্ম ধরে রাখলেন চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে বাসেলের বিপক্ষে। করলেন একটি গোল। সতীর্থের গোলে রাখলেন অবদান। এদিকে জোড়া গোল করলেন ইলকাই গিলদোয়ান। তাদের নৈপুণ্যে সহজ জয় নিয়ে এ টুর্নামেন্টের কোয়ার্টারে এক পা দিয়ে রাখল ম্যানচেস্টার সিটি। অন্য ম্যাজে গঞ্জালো হিগুয়েনের জোড়া গোলে এগিয়ে গিয়েও টটেনহ্যামের বিপক্ষে জিততে পারেনি জুভেন্টাস। তবে তারা হরেনি। ড্র নিয়েই থাকতে হয়েছে সন্তুষ্ট।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর প্রথম পর্বে বাসেলকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ম্যানসিটি। অন্য ম্যাচে টটেনহ্যামের বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র করেছে জুভেন্টাস।

প্রতিপক্ষের মাঠে ১০ মিনিটের মধ্যে তিনবার জালে বল পাঠিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় সিটি। ১৪তম মিনিটে কেভিন ড্র ব্রুইনের কর্নারে হেডে গোল করেন গিলদোয়ান। চার মিনিট পর বাঁ-দিক থেকে রাহিম স্টার্লিংয়ের ক্রস প্রতিপক্ষের একজনের মাথা ছুঁয়ে ফাঁকায় পেয়ে কোনাকুনি শটে ব্যবধান বাড়ান বের্নার্দো সিলভা। ২২তম মিনিটে আচমকা শটে প্রতিপক্ষের জালে বল জড়ান আগুয়েরো। দ্বিতীয়ার্ধের অষ্টম মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে জয় নিশ্চিত করে ফেলেন গিলদোয়ান।

এদিকে ম্যাচের ৯ মিনিটের মধ্যেই জোড়া গোল করে জুভেন্টাসকে জয়ের স্বপ্নই দেখিয়েছিলেন গঞ্জালো হিগুয়েন। কিন্তু বিরতির আগে এ আর্জেন্টাইন স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হলে শেষ পর্যন্ত ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় দলটির। এর মধ্যে ম্যাচের ৩৫তম মিনিটে প্রতিপক্ষের একটি আক্রমণ রুখে পাল্টা আক্রমণে ডেলে আলির পাস ধরে ডি-বক্সে ঢুকে বুফনকে কাটিয়ে কোণাকুণি শটে টটেনহ্যামের হয়ে গোল করেন হ্যারি কেন। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে ওঠা লড়াইয়ের ৭২তম মিনিটে সমতায় ফেরে অতিথিরা। প্রায় ২০ গজ দূর থেকে নিচু ফ্রি-কিকে লক্ষ্যভেদ করেন ক্রিস্তিয়ান এরিকসেন।