বিক্রি হচ্ছে না এয়ার ইন্ডিয়া

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ঋণের ভারে জর্জরিত ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান পরিবহন প্রতিষ্ঠান এয়ার ইন্ডিয়াকে এখনই বিক্রি করার পরিকল্পনা থেকে সরে আসছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। গত মার্চে প্রতিষ্ঠানটির ৭৬ শতাংশ শেয়ার বেচতে নিলাম ডাকা হয়েছিল। কিন্তু তাতে আগ্রহ দেখায়নি কেউ। এখন আবার চেষ্টা করলে অনেক কম মূল্যে বেচতে হবে, আর সেটি করলে রাজনৈতিক খেসারত দিতে হতে পারে। মূলত এই আশঙ্কাতেই বিক্রির পরিকল্পনা সাময়িকভাবে স্থগিত করেছে সরকার। খবর ব্ল–মবার্গ।
এয়ার ইন্ডিয়াকে কিনতে কেউ আগ্রহ না দেখালে বিদেশি প্রতিষ্ঠানের কাছেও বিক্রির একটি পরিকল্পনা ছিল সরকারের। কিন্তু এর বিরোধিতা করে কেউ কেউ। তার বদলে বরং বাজারে তার শেয়ার ছাড়ার পরামর্শও দিয়েছে অনেকে। কিন্তু ঋণের বোঝায় বেহাল প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার বাজারে এলেও সেগুলো কে কিনবে, তা নিয়ে প্রশ্ন থেকে যায়।
এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই গত সোমবার সন্ধ্যায় এখনও অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির নেতৃত্বে বৈঠকে বসেন পীযূষ গয়াল, সুরেশ প্রভু, নিতিন গডকড়ী প্রমুখ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। বৈঠকে এখনকার মতো বিক্রির চেষ্টা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত হয়। পাশাপাশি খরচ কমানোর বিভিন্ন পন্থা নিয়েও আলাপ হয় তাদের মধ্যে।
সরকারি এক কর্মকর্তা বলছেন, ‘তেলের দাম বাড়ছে। বিশ্ব অর্থনীতির চিত্রও ভালো নয়। এখন তাই বিক্রির আদর্শ সময় নয়।’ অনেকের মতে, এখন শেয়ার ছাড়লেও তা জীবন বিমা নিগম বা স্টেট ব্যাংকের মতো রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাকে দিয়েই কেনাতে হবে। অনেকে আবার মনে করছেন, এটা ভোটের বছর। তাই সংস্কারের ঝুঁকি নিতে গিয়ে বিপদ ডেকে আনতে নারাজ সরকার।
এদিকে সরকারের এ সিদ্ধান্তকে অনেকে স্বাগত জানিয়েছেন। স্বদেশি জাগরণ মঞ্চের যুগ্ম আহ্বায়ক অশ্বিনী মহাজন বলেন, ‘দক্ষ পরিচালনা, নগদের জোগান, ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগকে চাঙা করা ও ঋণের বোঝা ঢেলে সাজিয়ে এয়ার ইন্ডিয়াকে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। তার পরে বাজারে শেয়ার আনা যেতে পারে।’