বিজনেস আইডিয়া:মুড়ির ব্যবসা

শিপন আহমেদ: নিজের পায়ে দাঁড়াতে হলে আপনাকে উদ্যোগী হতে হবে। আর উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য ঠিক করতে হবে কী দিয়ে শুরু করবেন। এজন্য দরকার অল্প পুঁজিতে শুরু করা যায় এমন ব্যবসা। এ ধরনের উদ্যোক্তার পাশে দাঁড়াতে শেয়ার বিজের সাপ্তাহিক আয়োজন

গ্রাম বা শহরে যেকোনো জায়গায় ছোট-বড় সবার কাছে মুখরোচক খাদ্য হিসেবে মুড়ির চাহিদা আছে। সারা বছরই মুড়ির চাহিদা থাকে। অল্প পুঁজিতে মুড়ির ব্যবসা বেশ লাভজনক। স্বনির্ভর কর্মসংস্থান ও কম পুঁজির এই ব্যবসা আপনিও চালু করতে পারেন।

সুবিধা

  1. তুলনামূলক কম পুঁজি দিয়ে এই ব্যবসা শুরু করা যায়।
  2. ব্যবসাটি বেশ লাভজনক।

বাজার সম্ভাবনা

মুড়ি অতি জনপ্রিয় দেশীয় খাবার। মুখরোচক খাবার হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে এটি। মুড়ি তৈরি আমাদের গ্রামীণ সমাজ ও সংস্কৃতির একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। নতুন ধান কাটার পর বাড়িতে পিঠা তৈরির পাশাপাশি মুড়ি তৈরির ধুম পড়ে যায়। গ্রামের বাড়িতে অতিথি এলে অনেক সময় মুড়ি দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়। আবার শহরের বাড়িতেও মুড়ির কদর কোনো অংশে কম নয়। রমজানে ইফতারিতে মুড়ি বেশ জনপ্রিয়। স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের চত্বর, পার্ক, খেলার মাঠ ও গ্রামাঞ্চলে হাটবাজারে ঝালমুড়ির কদর রয়েছে। এছাড়া কাঁঠাল ও আমের সঙ্গে মিশিয়ে মুড়ি খাওয়া হয়ে থাকে।

মুড়ি তৈরির নিয়ম

  1. মুড়ি ভাজার উপযোগী চাল বেছে

নিতে হবে।

  1. মুড়ি ভাজতে দুটি চুলা দরকার হয়। একটি চুলায় চালগুলো অনবরত নাড়তে হয়, যেন সেগুলো বাদামি রং ধারণ করে। অন্য চুলায় বালি গরম করতে হয়। জ্বাল দেওয়ার আগে চালে লবণ ও সামান্য পানি মিশিয়ে নিতে হবে।
  2. চাল উত্তপ্ত হয়ে দু-একটি ফুটতে থাকলে গরম বালির পাত্রে চালগুলো ঢেলে নাড়াতে হবেÑসব চাল ফুটে যাবে।
  3. চাল ফোটা শেষ হলে চালুনি বা ছিদ্রযুক্ত পাত্রে ঢেলে দিলে মুড়িগুলো বালি থেকে আলাদা হয়ে যাবে।

বর্তমানে মেশিনে মুড়ি তৈরি হয়। এতে ইউরিয়া থাকে, যা আমাদের দেহের জন্য বেশ ক্ষতিকর। তাই ঘরে ভাজা মুড়ি যে বেশি স্বাদের ও স্বাস্থ্যকর সেটা প্যাকেটের গায়ে লিখে দেওয়া যেতে পারে।

পুঁজি

আনুমানিক পাঁচ হাজার থেকে সাত হাজার টাকা লাগতে পারে।

আয় বা লাভ

প্রায় ১০ কেজি ধান থেকে সাত কেজি চাল পাওয়া যায়। সাত কেজি চাল থেকে প্রায় সাত কেজি মুড়ি পাওয়া যাবে। সাত কেজি মুড়ি তৈরিতে ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা খরচ পড়তে পারে। এক কেজি মুড়ির বিক্রয়মূল্য ৫৫ থেকে ৬০ টাকা। কেজিপ্রতি লাভ হয় ১২ থেকে ১৪ টাকা।

প্রশিক্ষণ

মুড়ি তৈরির জন্য কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার দরকার নেই। মুড়ি তৈরির সময় দেখে শেখা সম্ভব। অভিজ্ঞ কারও কাছ থেকেও এ ব্যাপারে ধারণা নেওয়া যেতে পারে।