এসএমই

বিজনেস আইডিয়া: পুঁতির পণ্য

নিজের পায়ে দাঁড়াতে হলে আপনাকে উদ্যোগী হতে হবে। আর উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য ঠিক করতে হবে কী দিয়ে শুরু করবেন। এজন্য দরকার অল্প পুঁজিতে শুরু করা যায় এমন ব্যবসা। এ ধরনের উদ্যোক্তার পাশে দাঁড়াতে শেয়ার বিজের সাপ্তাহিক আয়োজন
পুঁতির পণ্য
পুঁতি দিয়ে পণ্য তৈরি হতে পারে ভালো বিজনেস আইডিয়া। পুঁতির সৌখিন জিনিস ও অলঙ্কার তৈরি করে শুরু করতে পারেন নিজের ব্যবসা। অনেক আগে থেকেই মানুষ তাদের ঘরকে সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তুলতে পুঁতির তৈরি সৌখিন জিনিস ব্যবহার করছে। এছাড়া পুঁতির তৈরি গয়নারও বেশ চাহিদা বেড়েছে। আপনি অল্প পুঁজি দিয়ে ব্যবসা শুরু করতে চাইলে এটি বেছে নিতে পারেন। পুঁতির পণ্য তৈরির ব্যবসা শুরু করার জন্য ধৈর্যধারণ করতে হবে। ইচ্ছাশক্তি ও সৃজনশীলতা কাজে লাগাতে হবে। কেননা কাজটি মূলত সৃজনশীল। এ ব্যবসায় যত সৃষ্টিশীলতা থাকবে তত লাভবান হওয়া যাবে।
ব্যবসার শুরুতে প্রয়োজনীয় কাঁচামাল কিনতে হবে। এসব কাঁচামাল বেশ সহজলভ্য। হাতের নাগালেই রয়েছে। যেমন বিভিন্ন ধরনের পুঁতি, রগ সুতা, কাচি এ ব্যবসার জন্য আবশ্যক। তবে অন্য আনুষঙ্গিক কাঁচামাল আপনার পণ্য বানানোর ওপর নির্ভর করবে। মূলত মেয়েরা এ ধরনের ব্যবসা করে ভালো উপার্জন করতে পারে। কারণ অলঙ্কারের বিষয়ে নিজের মতো করে আধুনিক ডিজাইনের একটার সঙ্গে আরেকটা মিলিয়ে ব্যবহারের উপযোগী করে তুলতে পারে তারা। তবে পুরুষরাও এ ব্যবসায় ভালো করছে।
ব্যবসা শুরু করবেন ঠিকই, কিন্তু বানাবেন কীভাবে? এ বিষয়ে চিন্তার কিছু নেই। ইউটিউবে পুঁতির বিভিন্ন পণ্য তৈরির ভিডিও টিউটোরিয়াল রয়েছে। তা দেখে সহজে শিখে নিতে পারেন। অথবা পরিচিত কেউ এ কাজ জানলে তার কাছেই শিখে নেওয়া যেতে পারে।
পুঁতির পণ্য কীভাবে বিক্রি করবেন? প্রথমে পুঁতির পণ্য তৈরি করে আপনার প্রতিবেশী ও আত্মীয়দের দেখান। প্রয়োজনে তাদের কিছু পণ্য উপহার দিন। আপনি যে এসব পণ্য তৈরি করছে তা আপনার এলাকায় প্রচার করুন। এক্ষেত্রে আত্মীয় বা বন্ধুবান্ধবের সহায়তা নিন। এসব পণ্য স্থানীয় দোকানে দিয়ে বিক্রি করতে পারেন। কিংবা নিজের বাসাতেই দোকান খুলে বিক্রি করতে পারেন। এছাড়া আর্টিফিশিয়াল জুয়েলারি বেচাকেনা হয় এ ধরনের দোকানে পুঁতির তৈরি অলঙ্কার পাইকারি দামে বিক্রি করা যায়। সামান্য পরিশ্রম ও আপনার সৃজনশীলতার মাধ্যমেই আসবে আপনার কাক্সিক্ষত সফলতা।

কামরুন নাহার ঊষা

সর্বশেষ..