বিনিয়োগ সেমিনারে অর্থমন্ত্রী

পুঁজিবাজার উন্নয়নে চেষ্টার ফল খুবই নগণ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক : অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, পুঁজিবাজার উন্নয়নে গত দুই মেয়াদে সরকারের পক্ষ থেকে অনেক উদ্যোগ নেওয়া হলেও চেষ্টার অর্জন খুবই নগণ্য। এছাড়া দীর্ঘমেয়াদে অর্থায়ন বাংলাদেশের জন্য একটি উদ্বেগজনক অবস্থায় দাঁড়িয়েছে এবং বিনিয়োগ ও শিল্পায়নের জন্য পুঁজিবাজার এখনও উৎস হয়ে দাঁড়ায়নি বলে উল্লেখ করেন তিনি।
রাজধানীর একটি হোটেলে গতকাল বাংলাদেশে দীর্ঘমেয়াদে অর্থায়ন সম্মেলন-২০১৮ শীর্ষক এক সেমিনারে এ কথা বলেন তিনি। যৌথভাবে সেমিনারটির আয়োজন করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক ইনস্টিটিউট বিভাগ, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও বিশ্বব্যাংক।
সেমিনারে অন্য বক্তারা বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ হয়েছে পুঁজিবাজার থেকে। বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রচুর অবকাঠামো নির্মাণসহ দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগে পুুঁজিবাজার হতে পারে সম্ভাবনাময় উৎস। কিন্তু সুশাসন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা ছাড়া বিনিয়োগকারীদের পুঁজিবাজারে আস্থায় নিয়ে আসা যাবে না। এ জন্য সরকারের বিভিন্ন সংস্থার মধ্যে সমন্বয় ও নীতিমালার কঠোর বাস্তবায়ন প্রয়োজন বলে এক সেমিনারে মতামত দিয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশ কার্যালয়ের আবাসিক প্রতিনিধি চিমায়াও ফান, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব ইউনুসুর রহমান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভুঁইয়া, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির প্রমুখ।
সেমিনারে চারটি সেশন অনুষ্ঠিত হয়। সেশনগুলোতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন ও প্যানেল আলোচনায় অংশ নেন বিএসইসির চেয়ারম্যান এম খায়রুল হোসেন, কমিশনার স্বপন কুমার বালা, নির্বাহী পরিচালক ফরহাদ আহমেদ, আইডিএলসির এমডি আরিফ খান, বিশ্বব্যাংকের প্রধান অর্থনীতি বিশেষজ্ঞ ফিওনা এলিজাবেথ স্টুয়ার্ট, স্টান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের এমডি মোহামম্মাদ এনামুল হক, ভ্যানগার্ড এসেট ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড ওয়াকার এ চৌধুরী, পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউট (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মানসুর, আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইএফসি অর্থ কর্মকর্তা শ্রে কোলি, মেঘনা ব্যাংকের এমডি আদিল ইসলাম, এশিয়ান টাইগার ক্যাপিটাল পার্টনারসের চেয়ারম্যান মিনহাজ জিয়া প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে দুঃখ প্রকাশ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, দীর্ঘমেয়াদে অর্থায়ন বাংলাদেশের জন্য একটি উদ্বেগজনক অবস্থায় দাঁড়িয়েছে। বিনিয়োগ ও শিল্পায়নের জন্য পুঁজিবাজার এখনও উৎস হয়ে দাঁড়ায়নি। আমাদের পুঁজিবাজারের বয়স খুব একটা বেশি হয়নি। বর্তমান সরকার গত দুই মেয়াদে দীর্ঘমেয়াদে পুঁজিবাজার উন্নয়ন করতে অনেক উদ্যোগ নিয়েছে। কিন্তু অর্জন খুবই নগণ্য। আগামী বাজেটের পরই বাজার উন্নয়নে স্টেকহোল্ডারদের নিয়ে বসব। বাজার উন্নয়নে অবশ্যই একটি দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নেওয়া দরকার।
বিশ্বব্যাংকের প্রতিনিধি চিমিয়াও ফান বলেন, বাংলাদেশ দীর্ঘমেয়াদে বিনিয়োগের জন্য একটি সম্ভাবনাময় দেশ। এ জন্য বাংলাদেশকে নীতিমালা আরও সহজ করতে হবে। রোহিঙ্গা এদেশের একটি দীর্ঘমেয়াদি সমস্যা। রোহিঙ্গাদের সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকবে বিশ্বব্যাংক। আইএফির বাংলাদেশ ব্যবস্থাপক ওয়েন্ডি জো ওয়ার্নার বলেন, চীনা দুই স্টক বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের অংশ হওয়ায় দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ টানতে ভ‚মিকা রাখবে।
বিএসইসির চেয়ারম্যান খায়রুল হোসেন বলেন, আমাদের পুঁজিবাজার মূলত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারী নির্ভর। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী অংশগ্রহণ খুবই কম। এছাড়া বাজার অনেক সময়েই গুজবনির্ভর হয়ে উঠায় ক্ষতিগ্রস্ত হন এ ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা।
পুঁজিবাজারে ঝুঁকি বাড়াচ্ছে জাতীয় সঞ্চয়পত্র: সেমিনারটিতে ‘প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের উৎসাহীকরণ’ শীর্ষক একটি সেশনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিশ্বব্যাংকের প্রধান অর্থ বিশেষজ্ঞ ফিওনা এলিজাবেথ স্টুয়ার্ট। তিনি উš§ুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে বলেন, বাংলাদেশের জাতীয় সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ বাড়ছে খুব বেশি। এখানে সুদের হারও বেশি। যা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ ঝুঁকি বাড়াচ্ছে। এ জন্য দেশীয় পুঁজিবাজার তারল্য সংকটে ভুগছে। তার বক্তব্যর সমর্থন দিয়ে আইডিএলসির এমডি আরিফ খানও তার বলেন, এটি বাজারের জন্য ঝুঁকি বাড়াচ্ছে।
আস্থা ফেরাতে দরকার পুরোনো তিন কথা: দেশীয় বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, পুঁজিবাজারের উন্নয়নে নতুন করে বলার কিছুই নেই। আস্থার সংকটে ভুগছে পুঁজিবাজার। বাজারের গতি ফিরিয়ে বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফেরাতে স্বচ্ছতা, সুশাসন ও জবাবদিহিতাÑএ পুরোনো কথাগুলো বাস্তবায়ন করতে পারলেই হবে। এক সেশনে অন্যান্য বক্তদের সঙ্গে সুর মিলিয়ে স্টান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের এমডি মোহাম্মাদ এনামুল হক বলেন, বিশ্বাস, স্বচ্ছতা ও অস্বাভাবিক খেলাপি ঋণ বন্ধ না হওয়া দীর্ঘমেয়াদে বিনিয়োগের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সুশাসনসহ এ ইস্যুগুলো সমাধান না হলে দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ আকর্ষণ করা কঠিন হবে। এগুলোর অনুপস্থিতি বিনিয়োগকারীরা আস্থা পাবে না। ভ্যানগার্ড অ্যাসেট ম্যানেজমেন্টের চেয়ারম্যান ওয়াকার এ চৌধুরী বলেন, পুঁজিবাজার নিয়ে বিনিয়োগকারীদের এক ধরনের নেতিবাচক পর্যবেক্ষণ বিশ্বাসে পরিণত হচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে বাজারে আসা কোম্পানির অবস্থা ভালো নয়। নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে কঠোর নজরদারির অভাব দেখা যাচ্ছে।