বিমা খাতের শেয়ারে লেনদেন বাড়ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: এশিয়া প্যাসিফিক ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারদর গত এক সপ্তাহ ধরেই বেড়েছে। কোম্পানিটির শেয়ারদর সর্বশেষ ২৫ টাকা ৫০ পয়সায় বেচাকেনা হয়। এক সপ্তাহ আগে কোম্পানিটির শেয়ার ২৪ টাকায় বেচাকেনা হয়েছে। গত এক মাসে কোম্পানিটির শেয়ার সর্বনিম্ন ২৩ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২৫ টাকা ৫০ পয়সায় বেচাকেনা হয়েছে। আর গত এক বছরে কোম্পানিটির শেয়ার সর্বনিম্ন ১৪ টাকা ৩০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ২৫ টাকা ৯০ পয়সায় লেনদেন হয়েছে।

এদিকে প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড গত সপ্তাহে দরবৃদ্ধির তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ১৮ দশমিক ৩৭ শতাংশ। সর্বশেষ কোম্পানিটির শেয়ার ২৩ টাকা ৪০ পয়সায় বেচাকেনা হয়েছে। কোম্পানিটির প্রতিদিন গড় লেনদেন হয়েছে তিন কোটি ৬২ লাখ চার হাজার ৪০০ টাকা। সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১৮ কোটি ১০ লাখ ২২ হাজার টাকা।

সাপ্তাহিক দরবৃদ্ধির তালিকায় ১০টির মধ্যে তিনটিই বিমা খাতের প্রতিষ্ঠান। প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স ছাড়াও এ তালিকায় উঠে এসেছে সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড।

পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারদর সপ্তাহের ব্যবধানে আট দশমিক ৯৫ শতাংশ বেড়েছে। প্রতিষ্ঠানটির দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে তিন কোটি ৬৯ লাখ টাকা। সপ্তাহজুড়ে মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১৮ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারদর সপ্তাহের ব্যবধানে আট দশমিক ৬২ শতাংশ বেড়েছে। কোম্পানিটির দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে দুই কোটি ৮৪ লাখ টাকা। সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেন হয়েছে ১৪ কোটি ২৪ লাখ টাকা।

গত সপ্তাহের মোট লেনদেনের মধ্যে বিমা খাতের অংশগ্রহণ ছিল চার শতাংশ। এর মধ্যে সাধারণ বিমা খাতের লেনদেন ছিল তিন শতাংশ এবং জীবন বিমা খাতের অংশগ্রহণ এক শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ খাতের অংশগ্রহণ ছিল মাত্র দুই শতাংশ। অর্থাৎ মোট লেনদেনের মধ্যে জীবন বিমার এক এবং সাধারণ বিমার এক শতাংশ অংশগ্রহণ ছিল। গেল সপ্তাহে বিমা খাতে দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে ৩৪ কোটি টাকা। এর মধ্যে সাধারণ বিমা খাতের দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে ২৭ কোটি টাকা এবং জীবন বিমা খাতের লেনদেন হয়েছে সাত কোটি টাকা।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দেশের পুঁজিবাজারে ব্যাংকিং খাতের পাশাপাশি বিমা খাতের শেয়ারে লেনদেন আগের চেয়ে সামান্য বেড়েছে। এ খাতের শেয়ার দীর্ঘদিন অবহেলায় থাকলেও এবার বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বাড়ায় এর প্রভাব পড়েছে লেনদেনেও। এর ধারাবাহিকতা কত দিন অব্যাহত থাকবে, তা নিয়েও বাজারে আলোচনা-সমালোচনা চলছে বলে জানান তারা।