শোবিজ

বিশ্বরেকর্ডে অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম

শোবিজ ডেস্ক: বিশ্বের সব সিনেমাকে পেছনে ফেলে জয়ী হয়েছে হলিউডের ছবি অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম। এর আগে দীর্ঘ ১০ বছর ধরে বক্স অফিসে শ্রেষ্ঠত্বের জায়গায় আসীন ছিল জেমস ক্যামেরনের ‘অ্যাভাটার’। সেই শ্রেষ্ঠত্বের জায়গা থেকে সর্বকালের সবচেয়ে আয় করা ছবির তালিকায় শীর্ষে পৌঁছেছে এই ছবি। চলতি বছরের ২৬ এপ্রিল মুক্তি দেওয়ার ৮৬তম দিনে জয়ীর মুখ দেখে অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম। শেষ পর্যন্ত ডিজনি ও মার্ভেলের এ প্রচেষ্টা সার্থক হলো। গত শনিবার ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’ গ্লোবাল বক্স অফিসে দুই দশমিক ৭৮৯২ বিলিয়ন ডলার ছিল। এদিকে ‘অ্যাভাটার’র (২০০৯) মোট আয় দুই দশমিক ৭৮৯৭ বিলিয়ন ডলার। একে অতিক্রম করতে প্রয়োজন ছিল পাঁচ লাখ ডলার, যা গতকাল উপার্জন হয়ে গেছে। অল্প অঙ্কের আয়ের জন্য যখন ‘অ্যাভাটার’কে জয় করা থমকে গিয়েছিল, তখন অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেমকে ইতিহাসের সর্বশ্রেষ্ঠ সিনেমার মর্যাদা দিতে বিশ্বজুড়ে মুক্তি দেওয়া হয়। দর্শক টানতে মূল সিনেমার সঙ্গে ছয় মিনিটের বিশেষ কিছু দৃশ্য সংযোজন করে মার্ভেল স্টুডিওস। এরপরই বক্স অফিসে বিশ্বের সর্বকালের সবচেয়ে বেশি আয় করা শ্রেষ্ঠ সিনেমার স্বীকৃতি পেলো ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’। আর দ্বিতীয় স্থানে চলে গেল ১০ বছর ধরে শীর্ষে থাকা অ্যাভাটার। তালিকার তৃতীয় অবস্থানে টাইটানিক, চতুর্থতে স্টার ওয়ারস: দ্য ফোর্স অ্যাওয়েকেনস ও পঞ্চম স্থানে রইলো অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার। ডিজনির কো-চেয়ারম্যান অ্যালান হর্ন অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’র বিজয়ের সুসংবাদ ঘোষণা করে মার্ভেল স্টুডিওস ও ওয়াল্ট ডিজনি স্টুডিওস দলের সদস্যদের অভিনন্দন জানিয়েছেন। বিশ্বজুড়ে সব ভক্ত-দর্শককেও তিনি ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

সর্বশেষ..



/* ]]> */