বি স্মার্ট ইউজ হার্ট চাইল্ড অনলাইন সেফটি কর্মসূচি

‘বি স্মার্ট ইউজ হার্ট’ নামের দেশব্যাপী একটি কর্মসূচির অধীনে স্কুলগুলোয় নিরাপদে ডিজিটাল শিক্ষালাভের উপায় নিয়ে প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হচ্ছে। এছাড়া চাইল্ড হেল্পলাইনে (১০৯৮) নিরাপদে ইন্টারনেট ব্যবহার-সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এ হেল্পলাইনে ফোন করে শিশু ও অভিভাবকরা এ-সংক্রান্ত পরামর্শ ও সহায়তা পাবেন।
কর্মসূচিটি চালু হওয়ার মাত্র এক মাসের মধ্যে প্রামীণফোন, টেলিনর গ্রুপ ও ইউনিসেফ এই চাইল্ড অনলাইন সেফটি কর্মসূচি দুই লাখ শিশুর কাছে পৌঁছে গেছে। এ বছরের কর্মসূচির লক্ষ্য ছিল ১১ থেকে ১৬ বছর বয়সী চার লাখ শিশু-কিশোর এবং ৫০ হাজার অভিভাবক ও শিক্ষককে নিরাপদে ইন্টারনেট ব্যবহারের বিষয়ে সচেতন করে তোলা।
এত কম সময়ে কর্মসূচিটি অর্ধেক পথ অতিক্রম করায় সন্তোষ প্রকাশ করে গ্রামীণফোনের সিইও বলেন, দ্রুত প্রযুক্তিগত পরিবর্তনের ফলে আমাদের অনেক পরিবর্তন মেনে নিতে হয়। তরুণ প্রজš§কে নতুন বাস্তবতার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে শেখানোটা আমাদের দায়িত্ব। আমাদের চাইল্ড অনলাইন সেফটি কর্মসূচি এমন একটি উদ্যোগ। আমরা যদি শিশুদের জন্য ইন্টারনেটে নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতে পারি, তাহলে তারা আরও সৃষ্টিশীলভাবে তা ব্যবহার ও এর সুবিধা উপভোগ করতে পারবে।
গ্রামীণফোন ২০১৪ সাল থেকে শিশুদের মাঝে নিরাপদ ইন্টারনেট-বিষয়ক সচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ করে যাচ্ছে। গত বছর পর্যন্ত দেশব্যাপী এক লাখ ৩০ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে এ বার্তা পৌঁছে দিতে সক্ষম হয়েছে। ২০১৫ সালে গ্রামীণফোন এবং ইউনিসেফ অভিভাবকদের জন্য দায়িত্বশীল ইন্টারনেট ব্যবহার ও সচেতনতা সম্পর্কিত একটি নির্দেশিকা প্রকাশ করেছে।