বে লিজিংয়ের রেকর্ড ডেট সোমবার

নিজস্ব প্রতিবেদক: বে লিজিং অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের রেকর্ড ডেট সোমবার। সেজন্য ওই দিন শেয়ার লেনদেন বন্ধ থাকবে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।সূত্রমতে, রেকর্ড ডেটের পরদিন থেকে পুঁজিবাজারে শেয়ার লেনদেন স্বাভাবিক নিয়মেই চলবে।
২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ শতাংশ নগদ ও পাঁচ শতাংশ বোনাসসহ মোট ১৫ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা ২৪ পয়সা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) ১৯ টাকা ৯৪ পয়সা। এটি আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে ৭৭ পয়সা ও ২০ টাকা ১৯ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য আগামী ১৯ মে বেলা ১১টায় আইডিইবি ভবন, ১৬০/এ কাকরাইলে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে।
সর্বশেষ কার্যদিবসে শেয়ারদর দুই দশমিক ৩৭ শতাংশ বা ৬০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ২৫ টাকা ৯০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ২৫ টাকা ৬০ পয়সা। দিনজুড়ে এক লাখ ২২ হাজার ৭২৬টি শেয়ার মোট ১৪১ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৩১ লাখ ৪০ হাজার টাকা। দিনজুড়ে শেয়ারদর সর্বনি¤œ ২৫ টাকা ১০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ২৬ টাকায় হাতবদল হয়। এক বছরে শেয়ারদর ২২ টাকা ৮০ পয়সা থেকে ৩০ টাকা ৩০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে।
৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটি ১৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে, যা আগের বছরের সমান। ওই সময় ইপিএস হয়েছে ৭৭ পয়সা এবং এনএভি ছিল ২০ টাকা ১৯ পয়সা। এটি আগের বছর ছিল যথাক্রমে ৭৩ পয়সা ও ২০ টাকা ৯১ পয়সা। ওই সময় কর-পরবর্তী মুনাফা ছিল ১০ কোটি ১৩ লাখ টাকা। এটি আগের বছর ছিল ৯ কোটি ৫৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা।
৩০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১৩০ কোটি ৯০ লাখ ৭০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ১১১ কোটি ২৬ লাখ টাকা। কোম্পানিটির মোট ১৩ কোটি ৯ লাখ ছয় হাজার ৮০০টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের ৩৬ দশমিক ২৫ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ৩৪ দশমিক ৯১ শতাংশ, বিদেশি শূন্য দশমিক ৩৬ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে ২৮ দশমিক ৪৮ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।