বিশ্ব সংবাদ

বোয়িংয়ের কাছে ক্ষতিপূরণ চায় চীনের তিন এয়ারলাইনস

৭৩৭ ম্যাক্স উড়োজাহাজের উড়ান বন্ধ

শেয়ার বিজ ডেস্ক: পাঁচ মাসে দুবার বিমান দুর্ঘটনার পর বিশ্বব্যাপী বোয়িংয়ের ৭৩৭ মাক্স উড়ান বন্ধ রাখা হয়। এ মডেলের উড়োজাহাজগুলোতে আপডেট সফটওয়্যার সংযোজনের কাজ সম্পন্ন করতে কিছু দিন সময় নেয় বোয়িং। অনেক দিন উড়ান বন্ধ রাখায় ক্ষতির শিকার হয় এয়ারলাইনসগুলো। এবার চীনের প্রধান তিনটি এয়ারলাইনস বোয়িংয়ের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে। খবর: বিবিসি।
৭৩৭ ম্যাক্স মডেলটি পরপর দুই দফা বিধ্বস্ত হলে ৩৪৬ জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। এর পর প্রথম চীনের নীতিনির্ধারকরাই প্রথম এ মডেলের উড়ান বন্ধ করেন। প্রতিবেদনমতে, উড়োজাহাজগুলোর উড়ান বন্ধ রাখায় এবং ৭৩৭ ম্যাক্স জেট সরবরাহে দেরি করায় মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা বোয়িংয়ের কাছে ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে এয়ার চায়না, চায়না সাউদার্ন ও চায়না এস্টার্ন। উড়োজাহাজশিল্পের নীতিনির্ধারকদের বৈশ্বিক সম্মেলনের প্রাক্কালে এমন দাবি করল এয়ারলাইনসগুলো। এতে বোয়িং আরও চাপে পড়বে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।
পাঁচ মাসের মধ্যে দ্বিতীয়বারের মতো ৭৩৭ ম্যাক্স-৮ মডেলের উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ায় মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা বোয়িং সংকটে পড়েছে। ইথিওপিয়ায় এ মডেলের উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ার পর থেকে এক সপ্তাহে প্রতিষ্ঠানটির বাজারমূল্য কমেছে দুই হাজার ৫০০ কোটি ডলার। শুধু আর্থিক ক্ষতিই নয়, উড়োজাহাজ খাতে প্রতিষ্ঠানটির সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে।
ইথিওপিয়ান এয়ারলাইনসের বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স-৮ বিধ্বস্ত হয়ে ১৫৭ আরোহীর সবাই নিহত হওয়ার জেরে একই মডেলের নিজেদের সব উড়োজাহাজ বন্ধ করার ঘোষণা দেয় অনেক দেশ। মার্কিন উড়োজাহাজ প্রস্তুতকারী কোম্পানি বোয়িংয়ের এ মডেলের উড়োজাহাজের নিরাপত্তা নিয়ে বিশ্বব্যাপী চলে তুমুল সমালোচনা। বিভিন্ন দেশ এ মডেলের উড়োজাহাজ চলাচল সাময়িকভাবে স্থগিত করে। প্রথমে বোয়িংয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এ মডেলের উড়োজাহাজ চলাচলের জন্য সম্পূর্ণ উপযোগী। কিন্তু ইথিওপিয়ায় উড়োজাহাজ দুর্ঘটনার স্থল থেকে তদন্তকারীরা কারিগরি ত্রুটির নতুন আলামত পেয়েছেন বলে জানালে উড়োজাহাজ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের সব উড়োজাহাজ চলাচল স্থগিত করে।
৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের চার হাজার উড়োজাহাজের ক্রয়াদেশ ছিল বোয়িংয়ের, যা এখন পর্যন্ত সরবরাহ করা হয়নি। কিন্তু চলমান এ অচলাবস্থা ক্রেতাদের অবশ্যই উদ্বিগ্ন করেছে। যদি ক্রেতারা এ উড়োজাহাজ নিতে অস্বীকৃতি জানায়, তাহলে বড় সংকটে পড়তে হবে প্রতিষ্ঠানটিকে।

সর্বশেষ..