প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

ব্যাংক খাতের গতি বৃদ্ধিতে বাজার ইতিবাচক

রুবাইয়াত রিক্তা: চার কার্যদিবস পর গতকাল কিছুটা ইতিবাচক গতিতে ফিরেছে পুঁজিবাজার। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ৩৪ পয়েন্ট ইতিবাচক হওয়ার পাশাপাশি ৬৩ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। লেনদেন বেড়েছে প্রায় সাড়ে ৩৪ কোটি টাকা। আর ইতিবাচক বাজারে প্রায় অধিকাংশ খাতের শেয়ারদর বেড়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি চাহিদা ছিল ব্যাংক খাতের। এ খাতে ইতিবাচক গতি ফিরে আসায় বাজার গতিশীল হয়ে ওঠে। গতকাল মোট লেনদেনের ৩৪ শতাংশই ছিল ব্যাংক খাতে। এ খাতের পাশাপাশি বিমা ও আর্থিক খাতও ভালো অবস্থানে ছিল।
গতকাল ব্যাংক খাতে লেনদেন হয় সাড়ে ৯৭ কোটি টাকা। এ খাতে ৮৩ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। সাড়ে ৩৪ কোটি টাকা লেনদেন হয়ে শীর্ষে উঠে আসে ব্র্যাক ব্যাংক। আবারও রাইট শেয়ার ছাড়ার সিদ্ধান্তে আইএফআইসি ব্যাংকের সাড়ে ১০ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে ২০ পয়সা। এক্সিম ব্যাংকের সাড়ে পাঁচ কোটি টাকা লেনদেন হয়। প্রিমিয়ার ব্যাংকের প্রায় পাঁচ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে ৫০ পয়সা। এছাড়া দরবৃদ্ধির শীর্ষ ১০ কোম্পানির তালিকায় অবস্থান করা ট্রাস্ট ব্যাংকের দর প্রায় ১০ শতাংশ, ব্যাংক এশিয়ার সাড়ে ছয় শতাংশ ও ঢাকা ব্যাংকের দর সাড়ে চার শতাংশ বেড়েছে। এছাড়া জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে লেনদেন হয় ১০ শতাংশ। এ খাতে বিক্রির চাপ থাকায় ৫৮ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। পাওয়ার গ্রিডের সাড়ে ৯ কোটি টাকা লেনদেন হলেও এক টাকা ৮০ পয়সা দরপতনে ছিল। ইউনাইটেড পাওয়ারের সোয়া পাঁচ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে দুই টাকা। ৯ শতাংশ লেনদেন হয় প্রকৌশল খাতে। এ খাতে ৫৯ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ওষুধ খাতে ৯ শতাংশ লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে ৬৪ শতাংশ কোম্পানির। বীকন ফার্মার পৌনে সাত কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৬০ পয়সা। আর্থিক খাতে ৯১ শতাংশ, চামড়াশিল্প খাতে ৮৩ শতাংশ ও বিমা খাতে ৭৩ শতাংশ কোম্পানির দর ইতিবাচক ছিল। ফরচুন শুজের ১৭ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে ৯০ পয়সা। বিমা খাতের ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স, রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্স ও ঢাকা ইন্স্যুরেন্স দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশে উঠে আসে।

ট্যাগ »

সর্বশেষ..