বিশ্ব বাণিজ্য

ব্রেক্সিট হলে সংকটে পড়বে ব্রিটেনের ইস্পাতশিল্প

শেয়ার বিজ ডেস্ক:ব্রিটেনের ইস্পাত শিল্প এখন এক কঠিন সময় পার করছে। ব্রেক্সিট কার্যকর হলে এর ভবিষ্যৎ আরও সংকটের মুখে পড়বে। এই অবস্থায় ব্রেক্সিট যেন না হয় এমনটাই চান ইস্পাত কারখানা মালিকেরা। খবর : দ্য গার্ডিয়ান
ইস্পাত শিল্পের উদ্যোক্তাদের এমন অবস্থানের কারণ খুব স্পষ্ট। চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের পথে যেভাবে ব্রিটেন এগিয়ে চলেছে সেটাও এই উদ্যোগ কমানোর কোনো পথ দেখাচ্ছে না। চুক্তিহীন ব্রেক্সিট হলে, ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত (ইইউ) দেশগুলোর সঙ্গে ব্রিটেনের বাণিজ্যিক সম্পর্ক কেমন হবে, সেটা ঘিরেই এ শঙ্কা। বিশেষ করে, ইস্পাত রফতানিতে শুল্ক বাধার মুখে পড়তে পারে ব্রিটেন। এরসঙ্গে আবার ইউরোপের প্রভাবাধীন দেশগুলোতে রফতানির বিষয়টি সম্পৃক্ত।
ইস্পাত ব্যবসায়ীদের চাপের মুখে সম্প্রতি ব্রিটেন বিদেশ থেকে ইস্পাত আমদানি সীমিত করতে রক্ষণশীল পদক্ষেপ নিয়েছে। ব্রেক্সিটের পরেও ব্রিটেনের ইস্পাত আমদানি এ নীতিমালার আওতায় থাকবে, এমন প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়েছে, সরকারের পক্ষ থেকে। তবে এটা আবার নতুন বিপদের জš§ দিয়েছে। ইইউ থেকে ইস্পাত আমদানিতে এ ধরনের বাধা থাকলে, ব্রেক্সিটের পর ইইউ পাল্টা ব্রিটিশ আমদানি নিরুৎসাহিত করার নীতি নিতে পারে।
আগামী পাঁচ মাসের মধ্যেই ইইউ এবং ব্রিটেনের বাণিজ্যিক সম্পর্কের রূপরেখা নিশ্চিত করতে হবে। এটা পরিকল্পনাবিদদের জন্য বাড়তি জটিলতা তৈরি করেছে। বিশেষ করে, গত তিন বছরে যে সব সমস্যার সমাধান হয়নি সেটা মাত্র পাঁচ মাসে কীভাবে সমাধান হবে, সেই প্রশ্ন রয়েই গেছে। আপাতদৃষ্টিতে, এটা পরিষ্কার ব্রেক্সিটের পর ব্রিটিশ ইস্পাত শিল্পকে বড় ধরনের ঝঞ্ঝা মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকতে হবে।
এদিকে চুক্তিহীন ব্রেক্সিট রাজনৈতিক আত্মহননের শামিল বলে মন্তব্য করেছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট। গত মঙ্গলবার দ্য টেলিগ্রাফে লেখা এক নিবন্ধে নিজের এমন অবস্থানের কথা জানান তিনি। তবে তার অবস্থানকে পূর্বসূরি বরিস জনসনের পুরোপুরি বিপরীত। সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসনের মতে, অক্টোবরের মধ্যেই ব্রিটেনের ইইউ ত্যাগ করা উচিত। সেটা চুক্তিসহ কিংবা চুক্তি ছাড়া যেটাই হোক।
এর আগে ব্রেক্সিট ইস্যুতে কোনো সমঝোতায় পৌঁছাতে ব্যর্থ হয়ে পদত্যাগের ঘোষণা দেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। আগামী ৭ জুন তার পদত্যাগের কথা রয়েছে। থেরেসা মে-র পদত্যাগের ঘোষণার পর ডাউনিং স্ট্রিটের দায়িত্ব নিতে আগ্রহী নেতাদের একজন জেরেমি হান্ট।

সর্বশেষ..