ব্র্যাক ব্যাংকের ঋণমান ‘এএ+’ ও ‘এসটি-১’

নিজস্ব প্রতিবেদক: ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের ঋণমান অবস্থান (ক্রেডিট রেটিং) নির্ণয় করেছে ঋণমান নির্ণয়কারী প্রতিষ্ঠান ইমারজিং ক্রেডিট রেটিং লিমিটেড (ইসিআরএল)। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
কোম্পানিটি দীর্ঘ মেয়াদে রেটিং পেয়েছে ‘এএ+’ এবং স্বল্পমেয়াদি ‘এসটি-১’। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের আলোকে এ রেটিং সম্পন্ন হয়েছে।
গতকাল শেয়ারদর এক দশমিক ২৪ শতাংশ বা ৮০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ৬৩ টাকা ৫০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৬৩ টাকা ৯০ পয়সা। দিনজুড়ে ২৫ লাখ ৯৯ হাজার ৪০৩টি শেয়ার মোট তিন হাজার ৮০ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ১৬ কোটি ৮৬ লাখ ৭৩ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৬৩ টাকা ৩০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৬৭ টাকা ৫০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ৬৩ টাকা ৩০ পয়সা থেকে ১১৪ টাকা ৪০ পয়সায় ওঠানামা করে।
২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সমাপ্ত হিসাববছরের বিনিয়োগকারীদের ২৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) করেছে ছয় টাকা সাত পয়সা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) ৩১ টাকা ১০ পয়সা। ওই সময় কর-পরবর্তী মুনাফা করেছে ৫১৯ কোটি ২৭ লাখ ৯০ হাজার টাকা।
৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ১০ শতাংশ নগদ ও ২০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে, যা আগের বছর ছিল ২৫ শতাংশ নগদ। এ সময় ইপিএস হয়েছে পাঁচ টাকা ৪৭ পয়সা এবং এনএভি ৩১ টাকা ৩৪ পয়সা। যা আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে তিন টাকা ২৮ পয়সা ও ২৮ টাকা ৪৭ পয়সা। ওই সময় কর-পরবর্তী মুনাফা করেছে ৩৮৮ কোটি ৭৯ লাখ ৪০ হাজার টাকা, যা আগের বছর ছিল ২৩২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা।
‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটি ২০০৭ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। এক হাজার ২০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন এক হাজার ৭২ কোটি ৫০ লাখ টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ এক হাজার ২১৬ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। চলতি হিসাববছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) ইপিএস হয়েছে এক টাকা ১৮ পয়সা। এটি আগের বছর একই সময় ছিল এক টাকা সাত পয়সা। অর্থাৎ ইপিএস বেড়েছে ১১ পয়সা। ৩১ মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত এনএভি হয়েছে ২৬ টাকা ১১ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময় ছিল ২১ টাকা ৭৯ পয়সা। ওই সময় কর-পরবর্তী মুনাফা করেছে ১২৬ কোটি ৫৬ লাখ ৬০ হাজার টাকা। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য-আয় (পিই) অনুপাতে ১০ দশমিক ৫৩ এবং হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে ১৩ দশমিক ৫৪।
কোম্পানিটির মোট ১০৭ কোটি ২৫ লাখ ২৮৫টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের ৪৪ দশমিক ৩০ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক আট দশমিক ৮৫ শতাংশ, বিদেশি ৩৯ দশমিক ৬৩ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে সাত দশমিক ২২ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।