বিশ্ব সংবাদ

ভারতের বাজেট ঘোষণা আজ

শেয়ার বিজ ডেস্ক: চলতি অর্থবছরে ভারতের প্রবৃদ্ধি সাত শতাংশ হতে পারে বলে পূর্বাভাস করেছে দেশটির সরকার, সর্বশেষ অর্থবছরের হওয়া ছয় দশমিক আট শতাংশের তুলনায় যা বেশি। এটি পাঁচ বছরের মধ্যে সবচেয়ে নিম্ন প্রবৃদ্ধি হওয়ার ঘটনা। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ভারতের অর্থনৈতিক সমীক্ষায় এ তথ্য উঠে এসেছে। খবর: রয়টার্স, আনন্দবাজার।
সমীক্ষায় বলা হয়েছে, ভারতের অর্থনীতি এ অর্থবছরে কিছু ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারে। অর্থনৈতিক মন্দা রাজস্ব আহরণে প্রভাব ফেলতে পারে। কারণ দেশটির উৎপাদন খাতের ব্যয় ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ তথ্য এমন এক সময় প্রকাশ করা হলো, যখন ভারত সরকার ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য বাজেট পেশ করতে যাচ্ছে।
ভারতের আইসিআইসিআই’র অর্থনীতিবিদ আনাঘা দিওধর বলেন, অর্থনৈতিক সমীক্ষা অনুযায়ী চলতি অর্থবছরে জিডিপির প্রবৃদ্ধি সাত হওয়া প্রত্যাশা অনুযায়ী ঠিক আছে। এ-সংক্রান্ত সূচকগুলো দেখাচ্ছে, অর্থবছরের প্রথমার্ধে প্রবৃদ্ধি ধীরগতির হবে। এছাড়া দ্বিতীয়ার্ধেও সে ধারা অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, চলতি অর্থবছরে মূল্যস্ফীতি তিন দশমিক সাত শতাংশ হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে, যদিও ভারত সরকার রাজস্ব আহরণের ক্ষেত্রে তাদের লক্ষ্যমাত্রায় পরিবর্তন নিয়ে আসবে।
এদিকে আজ শুক্রবার ভারতের ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা করা হবে। বাজেটের হিসাব মেলাতে এবার রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিলগ্নিকরণে ভরসা করছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের। সে লক্ষ্যে এবার শুধু বড় আয়ের লক্ষ্যই নয়, দেশে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার সংজ্ঞাই বদলাতে চাইছে নরেন্দ্র মোদির সরকার। এতে শেয়ার বেচার পথ সহজ হয়।
সরকারি সূত্র জানিয়েছে, এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের সঙ্গে নীতিনির্ধারকরা কথা বলেছেন। এতদিন কোনো সংস্থার ৫১ শতাংশ অংশীদারি সরকারের হলে তাকে রাষ্ট্রায়ত্ত বলা হতো। সেই সংজ্ঞা পাল্টানোর কথা ভাবা হচ্ছে, যাতে একদিকে সেগুলোর বেশি শেয়ার বেচে রাজস্ব বাড়ানো যায়, অন্যদিকে সংস্থাগুলোর রাষ্ট্রায়ত্ত পরিচয়ও থাকে।

সর্বশেষ..