ভালো কোম্পানি আনতে মার্চেন্ট ব্যাংকের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ: মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঁজিবাজারে ভালো মৌলভিত্তির কোম্পানি আনতে মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর ভূমিকা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সে কারণে তাদের আরও দায়িত্বশীল হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক অর্থ উপদেষ্টা এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম।

গতকাল সোমবার রাজধানীর একটি হোটেলে নিউজ পোর্টাল বিজনেস আওয়ার আয়োজিত ‘শিল্পায়নে আইপিওর গুরুত্ব’ শীর্ষক এক সেমিনারে তিনি এ পরামর্শ দেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর দায়িত্ব কী তা বুঝে কাজ করতে হবে। সেই সঙ্গে এত মার্চেন্ট ব্যাংকেরই অনুমোদন দেওয়া হয়েছে কিসের ভিত্তিতে, তা নিয়ন্ত্রক সংস্থার বিবেচনা নেওয়া উচিত। এখন মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোকে নিজেদের কাজ অন্তর দৃষ্টি দিয়ে বিশ্লষণ করা উচিত। কারণ পুঁজিবাজারে ভালো মৌলভিত্তির কোম্পানি আনতে তাদের ভূমিকা অনেক বেশি।

তিনি বলেন, বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে অর্থ সংগ্রহ করা সময়সাপেক্ষ। এ সমস্যার সমাধান করতে হবে। পৃথিবীর সব দেশেই পুঁজিবাজারে কিছু সমস্যা হয়। আমাদের দেশেও হয়। কিছুদিন আগেও পুঁজিবাজারে অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। তবে সেটা আশঙ্কাজনক নয়। এখন বাজার সুষ্ঠুভাবে চলছে। এমতাবস্থায় বিনিয়োগ করলে বড় ক্ষতি হবে না।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ বলেন, ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেকহোল্ডাররা শেয়ারবাজারের মূল সমস্যা। এরাই ১৯৯৬ ও ২০১০ সালে শেয়ারবাজারে পতনের সঙ্গে জড়িত।

তিনি বলেন, দেশের স্টক এক্সচেঞ্জে ডিমিউচুয়ালাইজড যথাযথ হয়নি। ডিমিউচুয়ালাইজড এত সহজ না। এতটা সহজ হলে তো হতোই। মূলত ডিমিউচুয়ালাইজড না করে প্লেয়ারদের সঙ্গে মিউচুয়ালাইজড করা হয়েছে।

এদিকে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের কমিশনার ড. স্বপন কুমার বালা বলেন, কমিশন আগের চেয়ে দ্রুততম সময়ে আইপিও অনুমোদন দিচ্ছে। দেরি হওয়ার পেছনে কমিশনের চেয়ে ইস্যুয়ারদের নির্ভুল আবেদন করা জরুরি। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আর্থিক হিসাবে গরমিল থাকায় এগুলো সংশোধন করে অনুমোদন পেতে সময় লেগে যায়।

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ সিদ্দিকী বলেন, প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) অনুমোদনে সময়ক্ষেপণের কারণে ভালো কোম্পানি পুঁজিবাজারে আসছে। যে কারণে দুর্বল কোম্পানি পুঁজিবাজারে আসছে। এ অবস্থায় এই সমস্যা কাটিয়ে তোলার জন্য স্বল্প সময়ে আইপিও অনুমোদন দেওয়া দরকার।

তিনি বলেন, কোনো ডায়নামিক উদ্যোক্তা পুঁজিবাজার থেকে ফান্ড সংগ্রহের জন্য দুই বছর অপেক্ষা করবে না। তাদের জন্য ব্যাংকঋণ দেওয়ার জন্য বসে রয়েছে। এ অবস্থায় তারা ব্যাংকঋণ নিয়ে কোম্পানিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। তাই ভালো কোম্পানিকে শেয়ারবাজারে আনার জন্য এ সমস্যার বিষয়টি গভীরভাবে চিন্তার প্রয়োজন। আর বুক বিল্ডিংয়ে দীর্ঘসময় লাগার কারণে শেয়ারবাজারে শুধু অভিহিত মূল্যে বেশিসংখ্যক কোম্পানি আসছে। এক্ষেত্রে দীর্ঘদিন ব্যবসার পরও অভিহিত মূল্যে শেয়ারবাজারে আসা কোম্পানির আর্থিক গভীরতা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়।

অনুষ্ঠানের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জিটিভির প্রধান প্রতিবেদক রাজু আহমেদ। আর সভাপতিত্ব করেন বিজনেস আওয়ার২৪.কমের প্রধান উপদেষ্টা ও ওমেরা ফুয়েলসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আক্তার হোসেন সান্নামাত।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিতি ছিলেনÑঅধ্যাপক ড. মাহমুদ ওসমান ইমাম (এফসিএমএ), বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আহসান উল্লাহ, আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান ও ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্ট ফোরামের সভাপতি হাসান ইমাম রুবেল।