বিশ্ব বাণিজ্য

ভেনেজুয়েলায় বিদ্যুৎ বিভ্রাট খাদ্যপণ্যের দাম আকাশছোঁয়া

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ভেনেজুয়েলায় পছন্দের সরকার বসাতে দেশটির ওপর আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। রাজধানী কারাকাসে চলছে সরকারপন্থি ও সরকারবিরোধীদের মুখোমুখি বিক্ষোভ। প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে ক্ষমতাচ্যুত করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন দেশটির স্বঘোষিত অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট জুয়ান গুয়াইদো। মার্কিন অবরোধের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করছে ভেনেজুয়েলা। দেশটিতে খাদ্যপণ্যের দাম বেড়ে আকাশ ছুয়েছে। এদিকে দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা দিয়েছে। খবর রয়টার্স।
গত বৃহস্পতিবার রাজধানী কারাকাসে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। হঠাৎ করেই কর্মব্যস্ত শহরে নেমে আসে অন্ধকার। তারপর অন্যান্য স্থানেও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে কারাকাসের প্রধান বিমানবন্দর অভিমুখী ফ্লাইটগুলোর দিক পরিবর্তন করা হয়েছে। বিমানবন্দরটির হাজার হাজার কর্মী বাড়ি চলে যেতে বাধ্য হন।
এর পাশাপাশি দেশটির খাদ্যপণ্যের দাম কয়েক গুণ বেড়ে গেছে। এক লিটার দুধের দাম ৮০ হাজার বলিভারে পৌঁছেছে। দুই কেজি একটি মুরগির দাম উঠেছে স্থানীয় মুদ্রা বা এক কোটি বলিভারে। তেল মজুদ থাকার পরও ভেনেজুয়েলা তাদের অভ্যন্তরীণ বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য জলবিদ্যুতের ওপরই নির্ভরশীল। গত কয়েক দশকে পর্যাপ্ত বিনিয়োগ না করার কারণে দেশটির প্রধান বাঁধগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ব্ল্যাকআউটের ঘটনা দেশটিতে নতুন কিছু নয়। ভেনেজুয়েলার বিরোধীদলীয় নেতা জুয়ান গুয়াইদো বলেন, ব্ল্যাকআউট একটি ‘বিশৃঙ্খলা, উদ্বেগ ও আশঙ্কার বিষয়। একই সঙ্গে এটি অবৈধ সরকারের অদক্ষতার প্রমাণ। তিনি বলেন, মাদুরো ক্ষমতা থেকে অপসারিত হলে আলো ফিরে আসবে। অন্যদিকে মাদুরো জানিয়েছেন, স্বঘোষিত অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট গুয়াইদো মার্কিন সমাজ্যবাদীদের সহায়তায় একটি অভ্যুত্থানের চেষ্টা চালাচ্ছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এক টুইটে জানান, খাদ্য নেই, ওষুধ নেই, এখন বিদ্যুৎও নেই। তারপর মাদুরোও থাকবে না।

সর্বশেষ..