প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

মন্দাবাজারে চাঙা মিউচুয়াল ফান্ড

রুবাইয়াত রিক্তা: পুঁজিবাজারে গতকাল প্রথম ১০ মিনিট বাদে বাকি সময়জুড়ে সূচকের পতন হয়েছে। ৬৮ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। লেনদেনও কমেছে ৭২ কোটি টাকা। সব খাতেই বড় ধরনের দরপতন হয়েছে। সিমেন্ট ও টেলিযোগাযোগ খাত শতভাগ নেতিবাচক ছিল। এছাড়া তথ্যপ্রযুক্তি, সেবা ও আবাসন এবং ভ্রমণ ও অবকাশ খাতে কোনো কোম্পানির দর বাড়েনি। বাকি খাতগুলোতে সামান্য সংখ্যক কোম্পানির দর বেড়েছে। তবে উল্টোচিত্র ছিল মিউচুয়াল ফান্ড খাতে। এ খাতে ৩৭ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটির দর কমেছে। দুটির দর অপরিবর্তিত ও বাকি সবগুলো প্রতিষ্ঠানের ইউনিটের দর বেড়েছে। এমনকি আটটি ফান্ডের বিক্রেতা ছিল না এক পর্যায়ে। বাজেটের পর থেকে পুঁজিবাজারে মন্দাভাব থাকলেও মিউচুয়াল ফান্ড খাত মাঝে মাঝে গতিশীল হয়ে ওঠে। বাজারের মন্দাবস্থা কাটাতে মিউচুয়াল ফান্ডের রি-ইনভেস্টমেন্ট ইউনিট বা বোনাস ইউনিট দেওয়ার আইন বাতিল করতে যাচ্ছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এছাড়া মিউচুয়াল ফান্ড আইন সংশোধন করা হতে পারে এমন খবরে এ খাতকে মাঝে মাঝে গতিশীল অবস্থানে দেখা যাচ্ছে।
গতকাল মোট লেনদেনের ১৭ শতাংশ বা ৭০ কোটি টাকা লেনদেন হয় বিমা খাতে। এ খাতে ৬৮ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের প্রায় সাড়ে ১১ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৬০ পয়সা। রূপালী ইন্স্যুরেন্সের ১০ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে দুই টাকা ১০ পয়সা। ১৪ শতাংশ করে লেনদেন হয় বস্ত্র ও মিউচুয়াল ফান্ড খাতে। দর বৃদ্ধির শীর্ষ ১০ কোম্পানির তালিকাটি শতভাগ ছিল মিউচুয়াল ফান্ড খাতের দখলে। এছাড়া প্রায় ১৩ কোটি টাকা লেনদেন হয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে আসে এশিয়ান টাইগার সন্ধানী লাইফ গ্রোথ ফান্ড। এর দর বেড়েছে এক টাকা ১০ পয়সা। বস্ত্র খাতে ৭২ শতাংশ কোম্পানি দরপতনে ছিল। প্যারামাউন্ট টেক্সটাইলের সোয়া ছয় কোটি টাকা লেনদেন হলেও ৩০ পয়সা দরপতন হয়। প্রকৌশল খাতে ১৩ শতাংশ লেনদেন হয়, ৫৩ শতাংশ কোম্পানি দরপতনে ছিল। সোয়া ১২ কোটি টাকা লেনদেন হলেও চার টাকা ৭০ পয়সা দরপতন হয় রানার অটোমোবাইলের। টানা সাত কার্যদিবসে শেয়ারটির দর ৩১ টাকা ২০ পয়সা বৃদ্ধি পাওয়ার পর গত বৃহস্পতিবার ডিএসই কোম্পানির কাছে দর বৃদ্ধির কারণ জানতে চায়। এর প্রেক্ষিতে কোম্পানি জানায়, তাদের কাছে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই। সর্বশেষ দুই কার্যদিবস ধরে দরপতন হয় শেয়ারটির। দরপতন শুরু হওয়ার পরে গত শুক্রবার সেরা ব্যবসায় উদ্যোক্তা শ্রেণিতে রানার গ্রুপকে নির্বাচিত করে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ রানার গ্রুপের পুরস্কার প্রাপ্তির খবরটির ভিত্তিতে আগেই একটি শ্রেণি এ শেয়ার নিয়ে ব্যবসা করে নিয়েছে। এছাড়া আর কোনো খাতেই উল্লেখযোগ্য লেনদেন হয়নি।

ট্যাগ »

সর্বশেষ..