প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

মন্দাবাজারে প্রকৌশল খাতে লেনদেন বেড়েছে আড়াইগুণ

রুবাইয়াত রিক্তা: পুঁজিবাজারে একদিন বড় উত্থানের ঝলক দেখিয়ে ফের আগের অবস্থানে ফিরে গেছে। টানা পতনের কবলে বাজার। সব খাতেই দরপতন হয়েছে। সূচক শেয়ারদর ও লেনদেন পতন অব্যাহত গতিতে চলছে। তবে গতকাল নতুন তালিকাভুক্ত রানার অটোমোবাইলের লেনদেন শুরুর কারণে প্রকৌশল খাতে ২২ শতাংশ লেনদেন হয়ে শীর্ষে উঠে আসে। আগেরদিন এ খাতে মাত্র ৯ শতাংশ লেনদেন হয়। বিমা ছাড়া বৃহৎ সবগুলো খাতের শেয়ারদরে বড় পতন হয়েছে। অন্যদিকে ছোট খাতগুলোর মধ্যে শতভাগ ইতিবাচক ছিল পাট খাত। সিমেন্ট খাতও তুলনামূলক ভালো অবস্থানে ছিল।
প্রকৌশল খাতে লেনদেন হয় মোট লেনদেনের ২২ শতাংশ বা ৭৩ কোটি টাকা। এ খাতে ২৯ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে। এর মধ্যে রানার অটোমোবাইলের লেনদেন হয় সাড়ে ৩৫ কোটি টাকা। প্রথম দিনে শেয়ারটির দর ২৫ টাকা ৪০ পয়সা বা প্রায় ৩৪ শতাংশ বেড়েছে। এছাড়াও ইস্টার্ন কেব্লসের সোয়া সাত কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে প্রায় ২৭ টাকা। কোম্পানিটি দর বৃদ্ধিতে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল। ন্যাশনাল টিউবসের সাড়ে ছয় কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে দুই টাকা। ব্যাংক খাতে লেনদেন হয় ১৭ শতাংশ। এ খাতে মাত্র ১৬ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে। ব্র্যাক ব্যাংকের সাড়ে সাত কোটি টাকা লেনদেন হলেও দরপতন হয়। অন্যদিকে ইসলামী ব্যাংকের দর সাড়ে তিন শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে উঠে আসে। এরপর জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে লেনদেন হয় ৯ শতাংশ। এ খাতে মাত্র ১০ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ডরিন পাওয়ারের সাড়ে সাত কোটি টাকা লেনদেন হলেও দরপতন হয়। বিমা খাতে ৫৭ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স। এছাড়া প্রায় পাঁচ শতাংশ বেড়ে সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স, সাড়ে তিন শতাংশ বেড়ে প্রিমিয়ার ইন্স্যুরেন্স ও কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে উঠে আসে। সিমেন্ট খাতে ৫৭ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। বস্ত্র খাতে ৩১ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। প্রায় ছয় শতাংশ বেড়ে শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ দর বৃদ্ধিতে তৃতীয় অবস্থানে উঠে আসে। এ্যাসকোয়ার নিটের সোয়া ছয় কোটি টাকা লেনদেন হলেও দেড় টাকা দরপতন হয়। বিবিধ খাতের এসকে ট্রিমসের প্রায় ১৩ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে এক টাকা ৯০ পয়সা। কোম্পানিটি দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে উঠে আসে।

 

ট্যাগ »

সর্বশেষ..