সারা বাংলা

মাদারীপুরে পুড়ে গেছে দুই হাজার কম্বল

প্রতিনিধি, মাদারীপুর: মাদারীপুরে আগ্নিকাণ্ডে শীতার্তদের জন্য রাখা দুই হাজার সরকারি কম্বল পুড়ে গেছে। গত বুধবার রাত ৪টায় সদর উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তার ত্রাণ শাখার স্টোররুমে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ঘটনাটি খতিয়ে দেখার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
উপজেলা প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ত্রাণ শাখার স্টররুমে ধোয়া দেখতে পায় স্থানীরা। কিছুক্ষণের মধ্যেই স্টররুমের মধ্যে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলে ওঠে। পরে স্থানীয়রা মাদারীপুর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। পরে মাদারীপুর ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুনে নিয়ন্ত্রণে আনে। এর আগেই আগুনে দুই হাজার কম্বল পুড়ে যায়। এছাড়া ওই রুমে থাকা পুরনো আসবাবপত্র ও বেশকিছু নথিপত্র পুড়ে গেছে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, রাতে আঁধারে স্টোররুমের ভেতরে প্রবেশ করে একটি চক্র। তারা বেশিরভাগ কম্বল স্টোররুম থেকে সরিয়ে ফেলে। পরে স্টোররুমের ভেতরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ ঘটনা সাজানো হয়েছে বলেও অভিযোগ তোলেন স্থানীয়রা।
মাদারীপুর সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, কম্বলগুলো গত বুধবার বিকেলে স্টোররুমে রাখা হয়েছিল। এগুলো বৃহস্পতিবার ছয় ইউনিয়নে হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণের কথা ছিল। কিন্তু আগুন কীভাবে লাগলো এ বিষয় এখনও কিছু নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। এ ঘটনাটি খতিয়ে দেখতে সদর উপজেলার ইউএনওকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি কমিটি গ্রহণ করা হয়েছে।
ইউএনও সাইফুদ্দিন গিয়াস জানান, ত্রাণ শাখার স্টোররুমে আগুন লাগার বিষয়টি নিয়ে এখনও তদন্ত শুরু হয়নি। তবে তদন্ত কমিটি এ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে শিগগিরই প্রতিবেদন জমা দেব। তবে ফায়ার সার্ভিসও এ বিষয়ে সুস্পষ্ট করে কিছু বলেনি।
মাদারীপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা নিত্য গোপাল সরকার জানান, ইউএনও অফিসের কোনো নাইটগার্ড ছিল না। আমাদের এক স্থানীয় খবর দেন। খবর পেয়ে দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছে। প্রায় এক হাজার ৫০০ কম্বল আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।

সর্বশেষ..