মালয়েশিয়ার পাম অয়েলের দর নিম্নমুখী

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক : টানা চার দিনের মতো গত মঙ্গলবার কমেছে মালয়েশিয়ার পাম অয়েলের দর। এদিন পণ্যটির দর গত এক সপ্তাহের সর্বনিন্মে চলে আসে। চলতি মাসে উৎপাদন বৃদ্ধি নিয়ে উদ্বেগে পণ্যটির দর কমছে। খবর বিজনেস রেকর্ডার।

বুরসা মালয়েশিয়া ডেরিভেটিভস এক্সচেঞ্জে আগামী জুনে সরবরাহের চুক্তিতে মঙ্গলবার প্রতি টন পাম অয়েল বিক্রি হয়েছে দুই হাজার ৪২৩ রিঙ্গিত বা ৬২৫ ডলার ২৯ সেন্টে। আগের দিনের তুলনায় এটি দশমিক তিন শতাংশ কম। লেনদেনের শুরুতে এর দাম এক দশমিক দুই শতাংশ কমে দুই হাজার ৪০৩ রিঙ্গিতে নেমেছিল। গত চার এপ্রিলের পর এটিই পণ্যটির সর্বনি¤œ দর। ওইদিন সব মিলিয়ে ৪৮ হাজার ৩৩৬ লট (প্রতি লটে ২৫ টন) পাম অয়েল লেনদেন হয়।

কুয়ালালামপুরভিত্তিক ব্যবসায়ীরা বলছেন, উৎপাদন বৃদ্ধি পাম অয়েলের দর কমাতে বড় ভূমিকা রাখছে।

গত মার্চে মালয়েশিয়ায় পাম অয়েল উৎপাদিত হয়েছে এক দশমিক ৫৭ মিলিয়ন টন। আগের মাসের তুলনায় এটি ১৭ শতাংশ বেশি। এদিকে চলতি মাসে পণ্যটির উৎপাদন আরও বাড়বে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে সংশ্লিষ্টরা। মূলত এ কারণেই পাম অয়েলের দর কমছে।

ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা থেকে সস্তায় ভোজ্যতেল আমদানি করায় ভারতের স্থানীয় তেলের চাহিদা কমে গেছে এবং দাম কমে গেছে। এতে স্থানীয় উৎপাদনকারীরা আমদানি করা তেলের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় পারছে না।