ফিচার সুস্বাস্থ্য

রক্ত সংকট নিরসনে ইডিইউ’র সোশ্যাল সার্ভিস ক্লাব  

????????????????????????????????????

 

সাইফ ইউ আলম: এক ব্যাগ রক্তের জন্য হাসপাতালের বারান্দায় রোগীর আত্মীয়-স্বজনদের দৌড়াদৌড়ি আর আহাজারির চিত্র প্রায়ই চোখে পড়ে। রক্তের জন্য অপেক্ষায় থাকা সেসব মানুষের প্রতি হাত বাড়িয়ে দিয়েছে চট্টগ্রামের ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির (ইডিইউ’র) সোশ্যাল সার্ভিস ক্লাবের সদস্যরা।

প্রতিবছর রমজান এলেই হাসপাতালগুলোতে রক্ত সংকট প্রকট আকার ধারণ করে। চট্টগ্রাম শহরের অনেক সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি আরও ৮০ থেকে ৯০টি বেসরকারি ক্লিনিক ও স্বাস্থ্যসেবা সংগঠন রয়েছে। সড়ক দুর্ঘটনা, আগুনে পোড়া, অ্যানিমিয়া, থ্যালাসেমিয়া, প্রসবকালীন জটিলতা, ব্লাড ক্যান্সার, অস্ত্রোপচারসহ নানা কারণে প্রায়ই রক্তের দরকার পড়ে।

রমজানে হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোয় রক্ত সংকট কমিয়ে আনতে ইডিইউ সোশ্যাল সার্ভিস ক্লাব ও টিম চিটাগংয়ের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হলো দিনব্যাপী রক্তদান কর্মসূচি। সম্প্রতি নগরীর নাসিরাবাদের মোজাফ্ফরনগর এলাকায় ইডিইউ’র স্থায়ী ক্যাম্পাসে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষকরাও রক্ত দান করেন। সংগৃহীত রক্ত দুঃস্থ রোগীদের চিকিৎসা সহায়তা হিসেবে ব্যবহার করা হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফাতেমা বেগম রেড ক্রিসেন্ট ব্লাড সেন্টারের ইনচার্জ ডা. মো. মিনহাজ উদ্দিন তাহের বলেন, রমজানে আমরা যেমন ধনী-গরিব সবাই মিলে এক সঙ্গে ইফতার করে সন্তুষ্টি কামনা করি, ঠিক তেমনি এ সময়ে যারা রক্ত সংকটে ভোগেন, তাদের দুর্ভোগ কমাতে রক্তদান করা উচিত। তিনি বলেন, ‘ইডিইউর সোশ্যাল সার্ভিস ক্লাবের সদস্যদের এমন উদ্যোগ প্রশংসনীয়। আমি চাইব তারা যেন সবসময় রক্ত দিয়ে প্রাণ বাঁচিয়ে সবার কাছে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকুক।’

ইডিইউ’র ড. মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘শীতবস্ত্র বিতরণ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম, বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি, সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধিসহ নানা ধরনের কার্যক্রমে বরাবরই এগিয়ে সোশ্যাল সার্ভিস ক্লাবের সদস্যরা।’ এ ধরনের কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীদের মননে এক ধরনের সামাজিক দায়বদ্ধতা তৈরি হয় বলে জানান তিনি।

টিম চিটাগংয়ের প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ আল কায়সার আগামী দিনগুলোতে ইডিইউ’র শিক্ষার্থীদের নিয়ে আরও বড় ধরনের সামাজিক সচেতনতামূলক কর্মসূচি হাতে নেবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

চট্টগ্রাম

 

 

 

 

 

সর্বশেষ..



/* ]]> */