রাশিয়া থেকে আসবে দুই লাখ টন গম

নিজস্ব প্রতিবেদক: বন্যার কারণে খাদ্যঘাটতি মেটাতে রাশিয়া থেকে দুই লাখ টন গম আমদানি করতে যাচ্ছে সরকার। জি টু জি পদ্ধতিতে এ গম আনা হবে। গত বৃহস্পতিবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটিতে গম আমদানির প্রস্তাবটি অনুমোদন করা হয়।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, ৪১৮ কোটি ৩২ লাখ টাকা ব্যয়ে রাশিয়ান ফেডারেশন থেকে জিটুজি ভিত্তিতে দুই লাখ মেট্রিক টন গম আমদানি হবে। কত দিনের মধ্যে রাশিয়া থেকে এসব গম আনা হবে, সেই সময়সীমা ক্রয় কমিটি বেঁধে দেয়নি বলে জানান তিনি।

এপ্রিলের শুরুতে আগাম বন্যায় হাওরে ফসলহানি এবং দুই দফার বন্যায় দেশের বিভিন্ন জেলায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ায় চলতি অর্থ বছরে ১৫ লাখ টন চাল এবং পাঁচ লাখ টন গম আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় ধাপে ধাপে খাদ্যশস্য আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন দিচ্ছে সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, টনপ্রতি গমের মূল্য পড়বে ২৫১ মার্কিন ডলার। সে হিসেবে দুই লাখ টন গম আমদানিতে বাংলাদেশের অর্থ ব্যয় হবে ৪১৮ কোটি টাকা। আগামী  মাসে রাশিয়া সরকার বাংলাদেশকে এ গম সরবরাহ করবে। এর আগে গত মাসে সচিবালয়ে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠক করে রাশিয়ার তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল। ওই বৈঠকেই গম আমদানি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

চলতি বছর উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বন্যার কারণে ফসলি জমি ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছে। উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ব্যাহত হওয়ায় সরকারের ধান, চাল ও গম সংগ্রহ ব্যর্থ হয়। একই সঙ্গে বন্যাকবলিত মানুষের ত্রাণ সহায়তায় খাদ্যসামগ্রী দেওয়ায় খাদ্যঘাটতি বেড়ে যায়।

আগামী মাসের মধ্যে রাশিয়া থেকে সরকারিভাবে দুই লাখ মেট্রিক টন গম আমদানি করতে গত ২১ আগস্ট বাংলাদেশ ও রাশিয়া সরকারের প্রতিনিধিদের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছিল।

ক্রয় কমিটির সভার আগে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে দরপত্র আহ্বান ছাড়াই রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে রাশিয়া থেকে সরকারিভাবে এই গম আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়।