রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে ৪৬ দেশের কূটনীতিকদের আহ্বান

শেয়ার বিজ ডেস্ক: কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালংয়ে নিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছে ৪৬টি দেশের প্রতিনিধিদল। গতকাল বুধবার দুপুরে পরিদর্শনশেষে তারা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের ভূমিকার প্রশংসা করেছেন। সাংবাদিকদের সামনে এক সংক্ষিপ্ত ব্রিফিংয়ে তারা বলেন, ‘একসঙ্গে এত মানুষকে আশ্রয় দেওয়ার জন্য সত্যিই বাংলাদেশ প্রশংসার দাবি রাখে। আমরা আন্তরিকভাবে এ পরিস্থিতি আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে তুলে ধরবো। মিয়ানমার সরকারের প্রতি অনুরোধ জানাবো, এ হামলা বন্ধ করে তারা যেন স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনেন ও রোহিঙ্গাদের ফেরত নেন। রোহিঙ্গাদের এ পরিস্থিতিতে আমরা উদ্বেগ প্রকাশ করছি।’

অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার জুলিয়া নিবল্যাট বলেন, রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় মানবিক সহায়তা হিসেবে বিশ্ব খাদ্য সংস্থা ও আইওএমের মাধ্যমে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করার জন্য ইতোমধ্যে ৪০ কোটি ডলার অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় আমরা বাংলাদেশের পাশে রয়েছি।

মার্কিন দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স জুয়েল রিফম্যান বলেছেন, এখানে পরিস্থিতি খুবই খারাপ। রোহিঙ্গারা মানবেতর অবস্থায় রয়েছে। আমি আমার সরকারকে বিষয়টি জানাবো।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা সমস্যাকে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে বাংলাদেশ। আমরা এই সমস্যা সম্পর্কে বিশ্বের সব দেশকে অবহিত করেছি। আমাদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে বিশ্বের ৪৬ দেশের রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিক প্রতিনিধিরা আজ উখিয়া ও টেকনাফে রোহিঙ্গাদের আশ্রয়কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন।

এসময় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক, আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম), বিভিন্ন আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থাসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বিদেশি কূটনীতিক প্রতিনিধিদলে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, নরওয়ে, ইইউ, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, পাকিস্তান, ইরাক, সংযুক্ত আরব আমিরাত, স্পেন, নেপাল, কাতার, নেদারল্যান্ডস, জার্মানি, দক্ষিণ কোরিয়া, ডেনমার্ক, অস্ট্রেলিয়া, ব্রুনাই, সুইজারল্যান্ড, জাপান, সৌদি আরব, প্যালেস্টাইন, মিশর, ইতালি, ওমান, কানাডা, আফগানিস্তান, ভুটান, ভারত, ইরান, তুরস্ক, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, কুয়েত, মালদ্বীপ, চীন, জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিল, বিশ্ব খাদ্য সংস্থার প্রতিনিধি ও আন্তর্জাতিক রেড ক্রস প্রতিনিধি।

গত ২৪ আগস্ট রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর হামলা শুরু হলে দলে দলে মানুষ বাংলাদেশে আসতে  শুরু করে। আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার হিসাব অনুযায়ী, গত মঙ্গলবার পর্যন্ত অন্তত তিন লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।