রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পাশে থাকবে কমনওয়েলথ

নিজস্ব প্রতিবেদক: কমনওয়েলথকে আরও শক্তিশালী ও কার্যকর করার বিষয়ে একমত হয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও সংস্থাটির মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড। গতকাল ঢাকায় সফররত কমনওয়েলথ মহাসচিবের সঙ্গে বৈঠক শেষে আইনমন্ত্রী এ কথা জানান। সচিবালয়ে আইন মন্ত্রণালয়ে দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন কমনওয়েলথ মহাসচিব।
বৈঠক শেষে আইনমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, কমনওয়েলথকে আরও শক্তিশালী ও কার্যকর করার ব্যাপারে আমরা একমত হয়েছি। এ সংস্থাকে যদি শক্তিশালী করা না যায় তাহলে যে উদ্দেশ্যে এ সংস্থা গঠন হয়েছে সেটা বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না। এটাকে শক্তিশালী ও কার্যকর করতে পারলে এ বিশ্বে যে সমস্যাগুলো রয়েছে সেটা নিয়ে কাজ করা যাবে। আইনমন্ত্রী আরও বলেন, বৈঠকে কমনওয়েলথের মহাসচিব বাংলাদেশের বিচার বিভাগের স্বাধীনতার ব্যাপারে প্রশংসা করেছেন। বাংলাদেশের বিচার বিভাগ যে স্বাধীনভাবে কাজ করছে তাতে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন। এছাড়া সাম্প্রতিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আমাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে।
আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজের বিষয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে আইনমন্ত্রী বলেন, তার বিষয়ে তদন্ত চলছে। তদন্তনাধীন বিষয় নিয়ে আমি কথা বলতে পারি না। তবে তদন্ত দ্রুতই শেষ হয়ে যাবে। অপরদিকে আইনমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে বেরিয়ে যাওয়ার সময় রোহিঙ্গা বিষয়ে কমনওয়েলথের ভূমিকা সম্পর্কে মহাসচিবের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাংলাদেশ নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে, তাদের থাকার ব্যবস্থা করেছে এ জন্য ধন্যবাদ জানাই। এ ইস্যুতে কমনওয়েলথ বাংলাদেশের পাশে থাকবে। কমনওয়েলথ মহাসচিব আরও বলেন, বৈঠকে বাংলাদেশের নারী-শিশুর উন্নয়ন, যুব উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ক্রিকেট একটি জনপ্রিয় খেলা। কমনওয়েলথ দেশগুলোর মধ্যে ক্রিকেটীয় সম্পর্ক গড়ে উঠতে পারে।