প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

লেনদেনে একক প্রাধান্য বিমা খাতের

রুবাইয়াত রিক্তা: বেশিরভাগ কোম্পানির দরপতন সত্ত্বেও গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক ইতিবাচক অবস্থানে ছিল। এদিন মোট লেনদেনের এক-চতুর্থাংশের বেশি হয়েছে বিমা খাতে। এরপর বস্ত্র খাত অবস্থান করলেও এ খাতে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কিছুটা কমেছে। আগেরদিন বস্ত্র খাতে ৮০ শতাংশ শেয়ারদর বাড়লেও গতকাল ছিল বিক্রির চাপ। বাকি খাতগুলোতে আগের দিনের তুলনায় শেয়ার কেনার চাপ বেশি ছিল। তবে দর বৃদ্ধিতে একক প্রাধান্য কোনো খাতের ছিল না। আর্থিক খাত মোটামুটি অবস্থানে ছিল। বেশিরভাগ শেয়ারের দরপতন সত্ত্বেও সূচকের উত্থানে ভূমিকা রেখেছে ইউনাইটেড পাওয়ার, স্কয়ার ফার্মা, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্লের মতো বড় মূলধনি কোম্পানির দর বৃদ্ধি।
সাধারণ ও জীবন বিমা মিলে বিমা খাতে লেনদেন হয় ৩১ শতাংশ বা ১৬৮ কোটি টাকা। এ খাতে দর বেড়েছে ৫৩ শতাংশ কোম্পানির। দর বৃদ্ধির শীর্ষ ১০ কোম্পানির তালিকাটির শতভাগ ছিল বিমা খাতের দখলে। এ ১০ কোম্পানি হচ্ছে রূপালী লাইফ, সানলাইফ ইন্সু্যুরেন্স, ইস্টার্ন ইন্সু্যুরেন্স, প্রাইম লাইফ, ইস্টল্যান্ড ইন্সু্যুরেন্স, সোনারবাংলা ইন্সু্যুরেন্স, সন্ধানী ইন্সু্যুরেন্স, ইস্টারন্যাশনাল লিজিং ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড, মেঘনা লাইফ ও ফারইস্ট লাইফ ইন্সু্যুরেন্স। এসব শেয়ারের দর সাড়ে সাত থেকে প্রায় ১০ শতাংশ বেড়েছে। এর মধ্যে ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের প্রায় সাড়ে ১৩ কোটি টাকা, সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের প্রায় ১১ কোটি টাকা, রূপালী লাইফের ১০ কোটি টাকা, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের প্রায় ৯ কোটি টাকা, ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্সের সাড়ে আট কোটি টাকা ও প্রগতি লাইফের সোয়া আট কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এরপর বস্ত্র খাতে লেনদেন হয় ১৪ শতাংশ। এ খাতে বিক্রির চাপ থাকায় মাত্র ২০ শতাংশ শেয়ারদর বেড়েছে। নূরানী ডায়িংয়ের প্রায় ১১ কোটি টাকা লেনদেন হয়, তবে দর অপরিবর্তিত ছিল। ড্রাগন সোয়েটারের প্রায় ৯ কোটি টাকা লেনদেন হলেও দরপতন হয়। আর কোনো খাতেই উল্লেখযোগ্য লেনদেন হয়নি। ওষুধ ও রসায়ন খাতে লেনদেন হয় ৯ শতাংশ। এ খাতে ৩৭ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। জেএমআই সিরিঞ্জের ১১ কোটি টাকা লেনদেন হলেও ১৬ টাকা দরপতনে ছিল কোম্পানিটি। জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে ৪৭ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। প্রকৌশল খাতে ২৩ শতাংশ, ব্যাংক খাতে ৪৩ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। আর্থিক খাতে বেড়েছে ৬৫ শতাংশ শেয়ারদর। ছোট খাতগুলোতে দর বৃদ্ধির হার তুলনামূলক কম ছিল।

ট্যাগ »

সর্বশেষ..