বিশ্ব বাণিজ্য

শঙ্কা অব্যাহত থাকলেও প্রবৃদ্ধিতে ফিরেছে ব্রিটেনের অর্থনীতি

শেয়ার বিজ ডেস্ক: চলতি বছরের মে মাসে প্রবৃদ্ধিতে ফিরেছে ব্রিটেনের অর্থনীতি। এর আগে এপ্রিলে দেশটির অর্থনীতিতে ঋণাত্মক প্রবৃদ্ধি হয়েছিল। তবে প্রবৃদ্ধিতে ফিরলেও ভবিষ্যতে প্রবৃদ্ধির শ্লথগতি নিয়ে শঙ্কা অব্যাহত রয়েছে। খবর: বিবিসি।
অফিস ফর ন্যাশনাল স্ট্যাটিসটিকসের (ওএনএস) তথ্যমতে, মে মাসে ব্রিটেনের প্রবৃদ্ধি হয়েছে দশমিক তিন শতাংশ। গত এপ্রিলে দশমিক চার শতাংশ ঋণাত্মক প্রবৃদ্ধি হয়েছিল। গত মাসে সব খাতেই প্রবৃদ্ধি হয়েছে। গত এপ্রিলের গাড়ি খাতে ঋণাত্মক প্রবৃদ্ধি ছিল, যা মে মাসে ঘুরে দাঁড়িয়েছে।
তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, জুনের প্রবৃদ্ধি অবশ্যই শক্তিশালী হতে হবে, তা না হলে দ্বিতীয় প্রান্তিকে ঋণাত্মক প্রবৃদ্ধি ঠেকানো যাবে না।
ব্রিটেনের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ‘ব্যাংক অব ইংল্যান্ড’ চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে দেশটির অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হ্রাস পাবে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে। দ্বিতীয় প্রান্তিকে দেশটির প্রবৃদ্ধি দশমিক দুই শতাংশ বৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছিল দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুদ্রানীতি কমিটি (এমপিসি)।
এমপিসির ৯ সদস্য দেশটির মুনাফার হার না বাড়িয়ে পূর্ববর্তী দশমিক ৭৫ শতাংশে স্থির রাখার জন্য সর্বসম্মতিক্রমে একমত হওয়ায় দ্বিতীয় প্রান্তিকে প্রবৃদ্ধি না বাড়ার পূর্বাভাস করা হয়েছে। বিলম্বিত ব্রেক্সিটকে সামনে রেখে পণ্য মজুদকরণ হ্রাস পাওয়ায় দেশটির প্রবৃদ্ধিকে খানিকটা প্রভাবিত বা হ্রাস করেছে বলে এমপিসি নিজেদের বিবৃতি উল্লেখ করেছে।
চলতি বছরের মার্চে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বের হয়ে যাওয়ার তারিখ থাকায় ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানি ও খাদ্য উৎপাদনকারী কোম্পানিগুলো মার্চ নাগাদ নিজেদের পণ্য মজুদকরণ বাড়িয়েছিল। ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলো চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের শঙ্কায় এক ধরনের প্রস্তুতি হিসেবে নিজেদের পণ্য মজুদ বাড়িয়েছিল। পরে ব্রেক্সিটের তারিখ চলতি বছরের অক্টোবর পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়ায় পণ্য মজুদকরণসহ ব্যবসার অন্যান্য শাখায় এর প্রভাব পড়েছে।

সর্বশেষ..