সুস্বাস্থ্য

শীতে অ্যালার্জি থেকে বাঁচতে

আবহাওয়া পরিবর্তন স্বাস্থ্যের ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলে। বিশেষত শীত আসলে বেড়ে যায় অ্যালার্জির প্রকট। আর পুরো শীতজুড়ে তা ভোগাতে পারে। সামান্য সতর্কতায় মুক্তি পেতে পারেন অ্যালার্জির সমস্যা থেকে

শীতে অ্যালার্জির কারণ

আগেই জেনেছেন, শীত মৌসুমে অ্যালার্জিতে আক্রান্ত হওয়ার হার বেশি। ঠাণ্ডা বাতাস, ধুলোবালি, তীব্র গন্ধ, প্রসাধন সামগ্রী, ধোঁয়া প্রভৃতির কারণে এ সমস্যা দেখা দেয়।

চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় এলারজেনজনিত উপসর্গই অ্যালার্জি। অর্থাৎ এলারজেনজনিত রোগগুলোকে অ্যালার্জি হিসেবে অভিহিত করা হয়। প্রচণ্ড শীতও অনেকের ক্ষেত্রে এ রোগের উপসর্গ হিসেবে কাজ করে। এটা কোল্ড অ্যালার্জি। তবে শীতে অ্যালার্জির প্রকোপ কেন বেশি থাকে তার নির্দিষ্ট কারণ খুঁজে পাওয়া যায় না। চিকিৎসকরা মনে করেন আবহাওয়া, তাপমাত্রা ও বায়ুচাপের পরিবর্তন, উচ্চ আর্দ্রতার কারণে এমন হয়ে থাকে। এর পাশাপাশি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন না থাকলেও অ্যালার্জি হতে পারে। অ্যালার্জি থেকে সর্দি, সাইনাসের প্রদাহ, হাঁপানি ইত্যাদি হতে পারে।

 

করণীয়

অ্যালার্জিজনিত রোগ প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা পড়লে ভালো। তাহলে রোগ ছড়িয়ে পড়ার আগেই চিকিৎসার মাধ্যমে সারিয়ে তোলা যায়। আধুনিক চিকিৎসাব্যবস্থা উন্নতির ফলে এটি সম্ভব করেছে।

তবে অবহেলা করলে, নিরাময় ব্যবস্থা না নিলে ভোগান্তি পোহাতে হবে নিশ্চিত। তাই রোগের প্রাদুর্ভাবের সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহণ করা হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

এছাড়াও অ্যালার্জির প্রকোপ থেকে বাঁচতে রুটিনমাফিক কিছু কাজ করতে পারেন। শীতের ভয় কাটিয়ে নিয়মিত গোসল করুন। সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার চেষ্টা করুন। পরিধেয় পোশাকআশাক পরিষ্কার রাখুন। ঠাণ্ডা বাতাস এবং ধুলোবালি থেকে বাঁচতে মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া কান ও নাক ঢেকে রাখতে পারেন।

 

 

 

 

সর্বশেষ..



/* ]]> */