শেষ মুহূর্তে বিক্রির চাপে সূচকের পতন

রুবাইয়াত রিক্তা: দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল ইতিবাচক প্রবণতায় লেনদেন শুরু হলেও শেষ হয় সূচকের পতন দিয়ে। দুপুর ১২টা পর্যন্ত শেয়ার কেনার চাপে লেনদেন ও সূচক দ্রুত বাড়তে থাকে। বেলা ১২টায় ডিএসইর প্রধান সূচক ৫৩ পয়েন্ট বেড়ে যায়। অন্য দুটি সূচকও ঊর্ধ্বমুখী ছিল। এ সময়ে ১৪৪টি কোম্পানির দর ইতিবাচক ছিল। ১২টার পর ধীরে ধীরে বিক্রির চাপ চলে আসে, ফলে সূচক নামতে থাকে। শেষ আধা ঘণ্টায় সূচক খুব দ্রুত ৫০ পয়েন্টের মতো নেমে যায়। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৩২৭ কোটি টাকা। অথচ লেনদেন শেষে সূচক কমেছে ৩৩ পয়েন্টের বেশি। অর্থাৎ বাজার নিয়ন্ত্রণকারী বড় বিনিয়োগকারীরা প্রথমার্ধে প্রচুর শেয়ার কিনে দর বাড়িয়ে দিয়ে শেষ মুহূর্তে আগের কেনা একই শেয়ার বিক্রি করে দেন। যার কারণে বাজারের লেনদেন ও সূচকের গতিতে সামঞ্জস্য পাওয়া যায়নি। আর এসব শেয়ারের সিংহভাগই ছিল ব্যাংক খাতের। কারণ গতকাল ব্যাংক খাতে লেনদেন হয় ৫১৮ কোটি টাকা, যা ছিল মোট লেনদেনের ৪৯ শতাংশ। ব্যাংক খাতে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে প্রায় ১৬৯ কোটি টাকা। অথচ প্রায় ৭৭ শতাংশ শেয়ারের দর কমে গেছে। এছাড়া বøক মার্কেটেও এ খাতের প্রায় ৩৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। শাহ্জালাল ব্যাংকের এক কোটি, আল-আরাফাহ্ ব্যাংক ৩০ লাখ, ব্র্যাক ব্যাংকের এক লাখ ১৫ হাজার এবং ব্যাংক এশিয়ার ৬৮ হাজার ৫০০ শেয়ার লেনদেন হয়। আর্থিক খাতে ১২৯ কোটি বা ১২ শতাংশ লেনদেন হলেও এ খাতের ৭৮ শতাংশ কোম্পানি দরপতনে ছিল। বস্ত্র খাতে ৬৭ কোটি টাকা লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের ছয় শতাংশ। এ খাতের ২৫ শতাংশ শেয়ারের দর বেড়েছে। এর মধ্যে ৯০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণায় স্টাইলক্রাফটের দর প্রায় ৫৫ শতাংশ বেড়ে টপ টেন গেইনার তালিকায় চলে আসে। দেশ গার্মেন্টসও পাঁচ দশমিক ১৮ শতাংশ বেড়ে এ তালিকায় অবস্থান করে। এছাড়া ওষুধ ও রসায়ন খাত, প্রকৌশল খাত ও তথ্য ও প্রযুক্তি খাতে লেনদেন হয় পাঁচ শতাংশ করে। জ্বালানি খাতে চার শতাংশ। শতভাগ শেয়ারের দর কমেছে সিরামিক, সেবা ও আবাসন এবং কাগজ ও প্রকাশনা খাতে। লেনদেনের নেতৃত্বে থাকা সিটি ব্যাংকের সাড়ে ৫৫ কোটি, লংকাবাংলা প্রায় ৫৪ কোটি, ব্র্যাক ও উত্তরা ব্যাংক ৫৩ কোটি, আমরা নেট ৩০ কোটি, এক্সিম ব্যাংক ২৯ কোটি, শাহ্জালাল ব্যাংক প্রায় ২৮ কোটি, ইসলামী ব্যাংক সাড়ে ২৭ কোটি, আল-আরাফাহ্ সাড়ে ২৫ কোটি ও ইউসিবির সাড়ে ২১ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।