শেয়ার বেচবেন ফারইস্ট ফাইন্যান্সের উদ্যোক্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক: শেয়ার বেচার ঘোষণা দিয়েছেন ফারইস্ট ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের উদ্যোক্তা তোফাজ্জল হোসেন। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
তোফাজ্জল হোসেনের কাছে কোম্পানির মোট ৮৭ লাখ ৫০ হাজার ৪৭৬টি শেয়ার রয়েছে। তা থেকে তিনি দুই লাখ ৭৩ হাজার শেয়ার বিক্রি করবেন। আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বর্তমান বাজারদরে পাবলিক মার্কেটে স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে উল্লিখিত পরিমাণ শেয়ার বিক্রি সম্পন্ন
করতে হবে।
কোম্পানিটি ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে কোনো লভ্যাংশ দেয়নি। ওই সময় কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে পাঁচ টাকা ৭২ পয়সা ও এনএভি ছয় টাকা ৩৭ পয়সা। এটি আগের বছর একই সময় শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ৬৩ পয়সা এবং এনএভি ছিল ১২ টাকা ৫৮ পয়সা। আগামী ৫ জুন সকাল ১০টায় ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা, কুড়িল বিশ্বরোড, ঢাকায় বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে।
গতকাল শেয়ারদর দুই দশমিক ৫৩ শতাংশ বা ২০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ সাত টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল সাত টাকা ৭০ পয়সা। দিনজুড়ে ৪৪ হাজার ১২৫টি শেয়ার মোট ৩৪ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর তিন লাখ ৪১ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ সাত টাকা ৭০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ সাত টাকা ৯০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ছয় টাকা ৯০ পয়সা থেকে ১৪ টাকা ৬০ পয়সায় ওঠানামা করে।
চলতি হিসাববছরের প্রথম প্রান্তিকের শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে চার পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল তিন টাকা ৮২ পয়সা। অর্থাৎ শেয়ারপ্রতি লোকসান কমেছে তিন টাকা ৭৮ পয়সা। ২০১৮ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ছয় টাকা ৩৩ পয়সা, যা আগের বছরের ৩১ ডিসেম্বর ছিল ছয় টাকা ৩৭ পয়সা।
কোম্পানিটি ২০১৩ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ সমাপ্ত হিসাববছরে পাঁচ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে। এ সময় ইপিএস হয়েছে ৬৩ পয়সা এবং এনএভি ১২ টাকা ৫৮ পয়সা। ওই সময় কর-পরবর্তী মুনাফা করেছে ১০ কোটি ২৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা।
২০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১৬৪ কোটি ছয় লাখ ৩০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৪২ কোটি ৪১ লাখ টাকা।
কোম্পানিটির মোট ১৬ কোটি ৪০ লাখ ৬৩ হাজার ৩৩০টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের ৪৯ দশমিক ২৭ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ১১ দশমিক ১৩ শতাংশ, বিদেশি দশমিক শূন্য ছয় শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৩৯ দশমিক ৫৪ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।