হোম শেষ পাতা সংবাদ সম্মেলন: ভবন ভাঙতে আরও এক বছর চায় বিজিএমইএ

সংবাদ সম্মেলন: ভবন ভাঙতে আরও এক বছর চায় বিজিএমইএ


Warning: date() expects parameter 2 to be long, string given in /home/sharebiz/public_html/wp-content/themes/Newsmag/includes/wp_booster/td_module_single_base.php on line 290

নিজস্ব প্রতিবেদক: হাতিরঝিলের ভবনটি ভাঙতে আরও এক বছর সময় চেয়েছে তৈরি পোশাক মালিক ও রফতানিকারকদের সমিতি (বিজিএমইএ)। বেআইনিভাবে নির্মিত ওই ভবনটি ভাঙার জন্য উচ্চ আদালতের চূড়ান্ত রায়ের পর ছয় মাস সময় দেওয়া হয়েছিল। সে অনুযায়ী আগামী সোমবার ওই মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

মেয়াদ শেষের দুদিন আগে সংগঠনটির পক্ষ থেকে সময় বাড়ানোর কথা জানানো হলো। এর আগে সংগঠনটির পক্ষ থেকে আদালতে আবেদন করা হয়েছে বলে জানা গেছে। গতকাল শনিবার আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটির সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘সরকার আমাদের নতুন ভবন নির্মাণের জন্য উত্তরায় জমি দিয়েছে। এরই মধ্যে সে জমিতে ভবন নির্মাণের জন্য পরামর্শক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। নিয়মিত কার্যক্রম চালানোর জন্য আংশিক নির্মাণ হলেও আমরা সেখানে চলে যাব। সেজন্য আরও এক বছর সময় প্রয়োজন। এই সময় চেয়ে আদালতে আবেদন করা হয়েছে।’

রাজধানীর উত্তরার তৃতীয় প্রকল্পে ১৭ নম্বর সেক্টরে সাড়ে পাঁচ বিঘা জমি রাজউকের পক্ষ থেকে সংগঠনটিকে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। অর্ধেক মূল্যে তারা এ জমি পেয়েছেন বলে জানা গেছে। গত বৃহস্পতিবার টাকা পরিশোধ করে সেই জমির দলিল বুঝে পেয়েছেন বলে জানান সিদ্দিকুর। নির্ধারিত সময়ে ভবন ভাঙতে না পারার বিষয়ে বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘বিজিএমইএ বেসরকারি খাতের সংগঠন হলেও সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রয়োজনে ইউডি, ইউপি, সি/ও এবং যন্ত্রপাতি আমদানির প্রত্যয়নপত্র সরবরাহের কাজ করতে হবে। এসব কাজ সরকারি দফতরে করতে দীর্ঘ সময় লাগে, যা খাতের জন্য অসুবিধাজনক। দাফতরিক কাজের জন্য প্রায় ৩০০ স্টাফ কাজ করতে পারে এমন কার্যালয় প্রয়োজন, যা আমরা খুঁজে পাইনি। তাই নিজস্ব ভবন নির্মাণের আগ পর্যন্ত আমাদের সময় প্রয়োজন।’

উল্লেখ্য, আইনি লড়াইয়ে হেরে যাওয়ার পর ১৬ তলা বিজিএমইএ ভবন ভেঙে ফেলতে পোশাক রফতানিকারকদের ছয় মাস সময় দিয়েছিলেন সুপ্রিমকোর্ট। জলাধার আইন লঙ্ঘন করে নির্মিত ওই ভবন হাইকোর্ট অবৈধ ঘোষণা করার পর আপিল বিভাগেও ওই রায় বহাল থাকে। বিজিএমইএ ওই রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন করলে তাও খারিজ হয়ে যায়। তখন কার্যালয় সরিয়ে নিতে বিজিএমইএ তিন বছর সময় চেয়েছিল। তবে আদালত তাদের ছয় মাসের মধ্যে সে কাজ শেষ করতে বলেছিলেন। নেতারা বলেন, আমরা আশা করি, সমগ্র অর্থনীতিতে এই শিল্পের অবদান বিবেচনা করে আদালত আমাদের এই আবেদন বিবেচনা করবেন। সংবাদ সম্মেলনে বিজেএমইএ সহসভাপতি মাহমুদ হাসান খান বাবু এবং মো. নাসিরসহ কয়েকজন পরিচালক উপস্থিত ছিলেন।