সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্রে পুঁজিবাজার

রুবাইয়াত রিক্তা: গত কয়েকদিনের পতনমুখী পুঁজিবাজারের যে চিত্র ছিল, গতকাল তার সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র দেখা গেছে। অর্থাৎ গতকাল ৭৬ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারদর বেড়েছে। ১৩ শতাংশ কোম্পানি দরপতনে ছিল। দর অপরিবর্তিত ছিল ১০ শতাংশ কোম্পানির। লেনদেন আশানুরূপ না হলেও ৯ কোটি টাকা বেড়েছে। গতকাল এককভাবে কোনো খাতের প্রাধান্য না থাকলেও সব খাতেই অধিকাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ব্যতিক্রম ছিল সিমেন্ট খাত। এ খাতে বেশিরভাগ কোম্পানির দরপতন হয়। অন্যদিকে শতভাগ ইতিবাচক খাতের তালিকায় ছিল টেলিযোগাযোগ, চামড়া শিল্প, সিরামিক, বিবিধ, ভ্রমণ, অবকাশ, সেবা ও আবাসন এবং কাগজ ও মুদ্রণ খাত। একটি করে কোম্পানির দরপতন হয়েছে এমন খাতগুলোর মধ্যে রয়েছে ওষুধ ও রসায়ন, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক, তথ্য ও প্রযুক্তি এবং পাট খাত। এমন বাজার চিত্র দেখে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরলেও শঙ্কা কাটেনি। কারণ এ চিত্র সাময়িক না কি সত্যি বাজার ঘুরে দাঁড়াচ্ছে তা নিয়ে দ্বিধায় বিনিয়োগকারীরা।
গতকাল ১৩ শতাংশ লেনদেন হয়ে শীর্ষে উঠে আসে বস্ত্র খাত। এ খাতে ৮১ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের মধ্যে অবস্থান করে সায়হাম কটন, এমএল ডায়িং, সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ। এসকোয়্যার নিটের ৯ কোটি টাকা লেনদেন হয়, গতকালও দরপতন হয় কোম্পানিটির। প্রকৌশল ও জ্বালানি খাতে লেনদেন হয় ১২ শতাংশ করে। প্রকৌশল খাতে ৯২ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। বিডি অটোকার, সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ ও রেনউইক যজ্ঞেশ্বর দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের তালিকায় অবস্থান করে। ইস্টার্ন কেব্লসের সোয়া পাঁচ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে চার টাকা ৪০ পয়সা। জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে ৮৪ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টস দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে অবস্থান করে। ইউনাইটেড পাওয়ারের সোয়া ১৭ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে এক টাকা ১০ পয়সা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে লেনদেন হয় ১১ শতাংশ। এ খাতে লিবরা ইনফিউশনের দর সাড়ে সাত শতাংশ বেড়েছে। রেকিট বেনকিজারের প্রায় সাত কোটি টাকা লেনদেন হলেও ১২৫ টাকা দরপতন হয়। গত কয়েকদিন টানা পতনের পর গ্রামীণফোনের দর সাড়ে ১১ টাকা বেড়েছে। যা সূচকের উত্থানে বড় ভূমিকা রেখেছে। ব্যাংক খাতে লেনদেন কমলেও ৬৬ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ইস্টার্ন ব্যাংক দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে অবস্থান করে। বিমা খাতে ৭৪ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে রূপালী লাইফ। সাড়ে পাঁচ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে সাড়ে আট টাকা।