সময় বাঁচানো প্রযুক্তি ফাস্ট চার্জিং

আমরা এমন একটি সময়ে বাস করছি, যখন সব সময় কিছু না কিছু নিয়ে ব্যস্ত থাকি। শত ব্যস্ততার মাঝেও হাতের স্মার্টফোনটি যদি কম সময়ে দ্রুত চার্জ নিতে পারে, নান্দনিকতা উপভোগ করার জন্য তুলনামূলক বেশিই সময় পাওয়া যায়। গ্রাহককে এই বাড়তি সুবিধাটুকু দিতে স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়ে এসেছে ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি।
কিছু স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বিগত কয়েক বছরে ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি দিয়ে দারুণ সাড়া ফেলেছে। এর মধ্যে কয়েকটির নামও আপনি শুনে থাকবেন, যেমন ঠঙঙঈ ফ্ল্যাশ চার্জ, ড্যাশ চার্জ, কুইক চার্জ প্রভৃতি। এই ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি দ্রুত ফোন চার্জ করতে সাহায্য করে।
ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি বিষয়টি বুঝতে হলে আগে স্মার্টফোন কীভাবে চার্জ হয়, তা জেনে নেওয়া যাক। অধিকাংশ স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানই রিচার্জেবল লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি ব্যবহার করে, যা একইসঙ্গে একটি পজিটিভ ও নেগেটিভ ইলেকট্রোডসহ একটি ইলেকট্রোলাইট দিয়ে তৈরি। ব্যাটারির মধ্যকার লিথিয়াম-আয়ন একটি ইলেকট্রোড থেকে আরেকটি ইলেকট্রোডে চলাচল করে। এতে করে ফোনের চার্জ হওয়া বা না হওয়া নির্ধারণ হয়। ফোন চার্জিংয়ের সময় কিছু পাওয়ার চার্জারে প্রবাহিত হয়। একটি
বিল্ট-ইন রেগুলেটর ব্যাটারিকে অতিরিক্ত পাওয়ার নেওয়া এবং জ্বলে যাওয়া থেকে বিরত রাখে। অর্থাৎ স্মার্টফোনের ইন্টারনাল রেগুলেটর চার্জের পেরামিটার সেট করে দেয়, যা চার্জিংকে সীমিত করে।
চার্জের ফল মাপা হয় অ্যাম্পিয়ার (এএমপি) ও ভোল্টেজে (ভি) দিয়ে। অ্যাম্পিয়ার হলো চার্জার থেকে সংযুক্ত ডিভাইসে প্রবাহিত হওয়া ইলেকট্রিসিটির পরিমাণ, ভোল্টেজ হলো ইলেকট্রিক কারেন্টের শক্তি। ভোল্টেজকে অ্যাম্পিয়ার দ্বারা গুন করলে ওয়াট পাওয়া যায়, যা মোট পাওয়ারের পরিমাণ। ব্যাটারির শক্তি বাড়ানোর জন্য অধিকাংশ উৎপাদক হয় অ্যাম্পিয়ার বুস্ট করেন, না হয় ভোল্টেজে তারতম্য করেন, যার জন্য ডিভাইস দ্রুত চার্জ নিতে পারে। বাজারে বর্তমানে বেশকিছু ফাস্ট চার্জার পাওয়া যাচ্ছে, যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো কোয়ালকম কুইক চার্জার, ওয়ানপ্লাস ড্যাশ চার্জার, মিডিয়াটেক পাম্প এক্সপ্রেস, অপো ঠঙঙঈ ফ্ল্যাশ চার্জ প্রভৃতি।
কুইক চার্জ দ্রুত ভোল্টেজ বাড়ানোর মাধ্যমে ফাস্ট চার্জ করে। কোম্পানির চিপসেটের ব্যাপক বিস্তৃতির কারণে চার্জিং পদ্ধতি হিসেবে বর্তমান বাজারে এটি অনেক বেশি ব্যবহƒত হচ্ছে। মিডিয়াটেক পাম্প এক্সপ্রেস প্রযুক্তিও ফোনে উচ্চমাত্রায় পাওয়ার চার্জিংয়ের জন্য বিশ্বস্ত।
চার্জিং গতি ও নিরাপত্তার অসাধারণ সমন্বয়ে অপো ঠঙঙঈ (ভোল্টেজ ওপেন লুপ মাল্টি-স্টেপ কনস্ট্যান্ট-কারেন্ট চার্জিং) দিচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির নিরাপদ চার্জিং পদ্ধতি। এই চার্জ ও ওয়ানপ্লাসের ড্যাশ চার্জ তাত্ত্বিকভাবে একই। ফাস্ট চার্জিংয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হলো তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়া, কখনও কখনও যা বিস্ফোরণেরও কারণ হতে পারে।
ঠঙঙঈ ব্যবহার করলে গেম খেলা ও চার্জিংয়ের সময় ফোন গরম হয়ে যাওয়ার ব্যাপারে চিন্তামুক্ত থাকতে পারেন। বর্তমান বাজারে এটিই একমাত্র প্রযুক্তি, যার মাধ্যমে গেম খেলা বা মুভি দেখার সময়ও হ্যান্ডসেট সমানতালে চার্জ নিতে সক্ষম। এ প্রযুক্তিতে যেহেতু চার গুণ বেশি দ্রুততম সময়ে চার্জ হয়, তাই ফোনের তাপ বেড়ে যাওয়া রোধ করতে অ্যাডাপটর থেকে পোর্ট পর্যন্ত পাঁচ স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তা সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে। একে দ্রুততম চার্জিং প্রযুক্তি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে ভোল্টেজ কমানো সার্কিটের পরিবর্তে এমসিইউ ব্যবহার করা হয়েছে।