কোম্পানি সংবাদ

সাপ্তাহিক লেনদেনের চার শতাংশ ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ২৯ লাখ ৯৫ হাজার ৬৯৩টি শেয়ার ৭৮ কোটি ৫৮ লাখ ৬১ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের তিন দশমিক ৭২ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির এক দশমিক ২৯ শতাংশ কমেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, সপ্তাহের শেষদিনে কোম্পানিটির শেয়ারদর আট দশমিক ২৩ শতাংশ বা ২০ টাকা ৪০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ২৬৮ টাকা ৩০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ছিল ১৮ কোটি ৮৯ লাখ ৪৬ হাজার টাকা। শেয়ারটির সমাপনী দর দাঁড়িয়েছে ২৬০ টাকা ৪০ পয়সায়। ওইদিন কোম্পানিটির শেয়ারদর সর্বনিম্ন ২৪১ টাকা ১০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ২৬৮ টাকা ৩০ পয়সায় হাতবদল হয়। আর গত এক বছরে শেয়ারটির দর ১৩৪ টাকা ৬০ পয়সা থেকে ২৮৩ টাকা ৩০ পয়সায় ওঠানামা করে।
‘এ’ ক্যাটেগরির ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ১৯৯৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। কোম্পানিটির ২০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১০৮ কোটি ৫২ লাখ ২০ হাজার টাকা।
কোম্পানিটির মোট ১০ কোটি ৮৫ লাখ ২১ হাজার ৯৮১টি শেয়ার রয়েছে। মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা বা পরিচালকের কাছে ৮২ দশমিক ৬৫ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ১০ দশমিক ৯২ শতাংশ, এবং ছয় দশমিক ৪৩ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে।
লেনদেনে দ্বিতীয় শীর্ষ অবস্থানে ছিল রানার অটো মোবাইলস লিমিটেড। সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির ৫৪ লাখ ৫৪ হাজার ৩৮৭টি শেয়ার ৫৭ কোটি ৪৪ লাখ ১২ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের দুই দশমিক ৭২ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর ৯ দশমিক ৬৮ শতাংশ কমেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, সপ্তাহের শেষদিনে কোম্পানিটির শেয়ারদর তিন দশমিক ৫৯ শতাংশ বা তিন টাকা ৬০ পয়সা কমে প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ৯৬ টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়। শেয়ারটির সমাপনী দর দাঁড়িয়েছে ৯৬ টাকা ১০ পয়সা। ওইদিন কোম্পানিটির শেয়ারদর সর্বনিম্ন ৯৪ টাকা ৫০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ১০৩ টাকা ৭০ পয়সায় হাতবদল হয়। আর গত এক বছরে শেয়ারটির দর ৭৭ টাকা ৭০ পয়সা থেকে ১১৪ টাকা ৫০ পয়সায় ওঠানামা করে।
‘এন’ ক্যাটেগরির রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড ২০১৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। কোম্পানিটির ২০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১০৮ কোটি ১৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫৬১ কোটি ৪৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা।
কোম্পানিটির মোট ১০ কোটি ৮১ লাখ ৩৩ হাজার ২৬৯টি শেয়ার রয়েছে। মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকের কাছে ৫০ দশমিক চার শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ২৬ দশমিক ৭৬ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে শূন্য দশমিক শূন্য চার শতাংশ এবং ২৩ দশমিক ১৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে।
লেনদেনে শীর্ষ তিনে অবস্থান করে এশিয়ান টাইগার সন্ধানী লাইফ গ্রোথ ফান্ড। মিউচুয়াল ফান্ডটির চার কোটি ২৪ লাখ ১৭ হাজার ৫৪৫টি শেয়ার ৫৬ কোটি ১৯ লাখ ৭৪ হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা মোট লেনদেনের দুই দশমিক ৬৬ শতাংশ। সপ্তাহজুড়ে শেয়ারটির দর ২২ দশমিক ৫২ শতাংশ বেড়েছে।
এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে এক দশমিক ৪৪ শতাংশ বা ২০ পয়সা কমে সর্বশেষ ১৩ টাকা ৭০ পয়সায় এর ইউনিট হাতবদল হয়। সমাপনী দর ছিল ১৩ টাকা ৬০ পয়সা। দিনভর ফান্ডটির শেয়ারদর ১৩ টাকা ১০ পয়সা থেকে ১৪ টাকা ২০ পয়সায় লেনদেন হয়। গত এক বছরে এ ইউনিটের সর্বোচ্চ দর ছিল ১৫ টাকা ২০ পয়সা ও সর্বনিম্ন আট টাকা ৭০ পয়সা। ২০১৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ‘এ’ ক্যাটেগরির এই মিউচুয়াল ফান্ডটির পরিশোধিত মূলধন ৬১ কোটি ৭৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা। মোট ইউনিট ছয় কোটি ১৭ লাখ ৮৬ হাজার ৫০টি; যার মধ্যে উদ্যোক্তা-পরিচালক ২৭ দশমিক ২৭ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ৫১ দশমিক ৫৪ শতাংশ, বিদেশি শূন্য দশমিক ১০ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর হাতে রয়েছে বাকি ২১ দশমিক ৯ শতাংশ শেয়ার।
চতুর্থ অবস্থানে থাকা জেএমআই সিরিঞ্জ অ্যান্ড মেডিক্যাল ডিভাইসেস লিমিটেডের ৯ লাখ ৫০ হাজার ৬৭০টি শেয়ার ৪৫ কোটি ৪৭ লাখ দুই হাজার টাকায় লেনদেন হয়, যা ছিল মোট লেনদেনের দুই দশমিক ১৫ শতাংশ। শেয়ারটির দর কমেছে শূন্য দশমিক ৫৯ শতাংশ।
এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর আগের কার্যদিবসের চেয়ে শূন্য দশমিক ৩৮ শতাংশ বা এক টাকা ৮০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ৪৬৯ টাকা ৩০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৪৭০ টাকা ৫০ পয়সা। দিনজুড়ে কোম্পানিটির ৮৫ হাজার ১৪৭টি শেয়ার মোট এক হাজার ১৮১ বার হাতবদল হয়। যার বাজারদর চার কোটি ৪৪ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনিম্ন ৪৬৩ টাকা ৪০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৪৭৭ টাকায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে কোম্পানিটির শেয়ারদর ১৭৮ টাকা ৫০ পয়সা থেকে ৫০০ টাকা ১০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে।
পঞ্চম অবস্থানে থাকা রূপালী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের এক কোটি ৭০ লাখ ৪৩ হাজার ৮টি শেয়ার ৪২ কোটি ৪১ লাখ ৩১ হাজার টাকায় লেনদেন হয়। শেয়ারটির দর সাত দশমিক ৯৬ শতাংশ বেড়েছে। ষষ্ঠ অবস্থানে থাকা সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ৫৭ লাখ ৮৫ হাজার ২২১টি শেয়ার ৩৭ কোটি ১৭ লাখ ৬৭ হাজার টাকায় লেনদেন হয়। ইউনাইটেড পাওয়ারের ৯ লাখ ১০ হাজার ৪৪টি শেয়ার ৩৪ কোটি ১১ লাখ ১৯ হাজার টাকায় লেনদেন হয়। মুন্নু সিরামিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ১৮ লাখ ৫৪ হাজার ছয়টি শেয়ার ৩২ কোটি ৩৩ লাখ ৫৭ হাজার টাকায় লেনদেন হয়।
গ্রামীনফোনের ৮ লাখ ৭৯ হাজার ৯৬৩টি শেয়ার ২৯ কোটি ৭৭ লাখ ৫৯ হাজার টাকায় লেনদেন হয়। রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৪৬ লাখ ৪৮ হাজার ৮৯২টি শেয়ার ২৯ কোটি ৫৮ লাখ ৩৪ হাজার টাকায় লেনদেন হয়।

সর্বশেষ..