কোম্পানি সংবাদ মার্কেটওয়াচ লভ্যাংশ ঘোষণা

সায়হাম কটন মিলসের দর বেড়েছে ৪২ শতাংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) তালিকাভুক্ত কোম্পানি সায়হাম কটন মিলস লিমিটেড গত সপ্তাহে দর বৃদ্ধির তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারদর বেড়েছে ৪২ দশমিক শূন্য তিন শতাংশ। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
সূত্র মতে, গত সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন গড় লেনদেন হয়েছে চার কোটি ২৪ লাখ ৫৭ হাজার ৬০০ টাকার শেয়ার। সপ্তাহ শেষে মোট লেনদেনের পরিমাণ ছিল ২১ কোটি ২২ লাখ ৮৮ হাজার টাকা।
সর্বশেষ কার্যদিবসে কোম্পানিটির ৫৬ লাখ ৫৮ হাজার ৮৫৩টি শেয়ার মোট এক হাজার ৪০৪ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ১০ কোটি ৯৩ লাখ ৯৬ হাজার টাকা। ওইদিন শেয়ারদর ৯ দশমিক ৫০ শতাংশ বা এক টাকা ৭০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ১৯ টাকা ৬০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল ১৯ টাকা ৬০ পয়সা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনিম্ন ১৮ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১৯ টাকা ৬০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ১৩ টাকা ২০ পয়সা থেকে ২০ টাকা ৫০ পয়সায় ওঠানামা করে।
২০১২ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয় ‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটি। ৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত হিসাববছরে ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এ সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা সাত পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ৬৪ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য আগামী ১৮ ডিসেম্বর দুপুর সাড়ে ১২টায় মিল প্রাঙ্গণ, নয়াপাড়া, সায়হাম নগর, মাধবপুর, হবিগঞ্জে বার্ষিক সধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। সেজন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ২০ নভেম্বর।
তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ইনটেক লিমিটেড। গত সপ্তাহজুড়ে কোম্পানির শেয়ার দর বেড়েছে ৩২ দশমিক ১৪ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে ১০ কোটি ৮৪ লাখ ৯৫ হাজার ৬০০ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৫৪ কোটি ২৪ লাখ ৭৮ হাজার টাকার শেয়ার।
সর্বশেষ কার্যদিবসে কোম্পানিটির ৩৩ লাখ ৭৭ হাজার ৯০টি শেয়ার মোট তিন হাজার ৫২০ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ১৮ কোটি ৪০ লাখ ৭০ হাজার টাকা। ওইদিন শেয়ারদর ৯ দশমিক ৯০ শতাংশ বা পাঁচ টাকা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ৫৫ টাকা ৫০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল ৫৫ টাকা ৫০ পয়সা।
৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত হিসাববছরে ১১ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এ সময়ে ইপিএস হয়েছে এক টাকা ২৫ পয়সা এবং এনএভি দাঁড়িয়েছে ১১ টাকা ৪৪ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য আগামী ১৩ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় রাওয়া কনভেনশন হল, ভিআইপি রোড, মহাখালী, ঢাকায় বার্ষিক সধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেজন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ১৮ নভেম্বর।
তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা কুইন সাউথ টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের শেয়ারদর বেড়েছে ২৯ দশমিক ২৮ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে কোম্পানিটির প্রতিদিন গড়ে দুই কোটি ৫৩ লাখ ৯ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর পুরো সপ্তাহে ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।
কোম্পানিটির শেয়ারদর সর্বশেষ কার্যদিবসে আট দশমিক ৮০ শতাংশ বা তিন টাকা ৯০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ৪৮ টাকা ২০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ৪৬ টাকা ৮০ পয়সা। দিনজুড়ে আট লাখ ৯৬ হাজার ৪৯০টি শেয়ার মোট এক হাজার ৫৫ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর চার কোটি ৯ লাখ ৫১ হাজার টাকা।
২০১৮ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত সমাপ্ত হিসাববছরে নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে সাত শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত সময়ে ইপিএস হয়েছে এক টাকা ৯৬ পয়সা এবং এনএভি দাঁড়িয়েছে ১৭ টাকা ৭৩ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য এজিএম আগামী ২৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এজিএমের সময় ও স্থান পরে জানিয়ে দেওয়া হবে।
তালিকায় থাকা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন, এসকে ট্রিমস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ, এম.এল ডায়িং লিমিটেড, রিজেন্ট টেক্সটাইল মিলস ও ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

সর্বশেষ..