সারা বাংলা

সৈয়দপুরে ৯ ব্যবসায়ীর জরিমানা

প্রতিনিধি, সৈয়দপুর: নীলফামারীর সৈয়দপুরে মূল্য তালিকা না টাঙানো, অস্বাস্থ্যকর ও ক্ষতিকর রং মিশিয়ে লাচ্ছা সেমাই তৈরি, অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাবার তৈরি, পরিবেশন ও আয়োডিনবিহীন লবণ বিক্রি ও ওজন পরিমাপক যন্ত্র না থাকার দায়ে ৯ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মালিকের জরিমানা করা হয়েছে। এ সময় একটি লাচ্ছা তৈরি প্রতিষ্ঠান সাময়িক বন্ধ ও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের খাদ্য এবং লবণ ধ্বংস করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সৈয়দপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় রংপুর বিভাগীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর ওই ভেজালবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে। এতে নেতৃত্ব দেন রংপুর বিভাগীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের উপপরিচালক (ডিডি) খন্দকার মো. নুরুল আমিন।
অভিযান চলাকালে সৈয়দপুর শহরের মাংস বাজারে মূল্য তালিকা না থাকায় এবং অপরিচ্ছন্ন মাংস বিক্রি করার দায়ে সুরুজ মাংস দোকানের মালিক সুরুজের তিন হাজার টাকা, তৃপ্তি মাংস বিতানের শওকত আলীর এক হাজার, ডিজিটাল ওজন পরিমাপক যন্ত্র না থাকায় মাছ ব্যবসায়ী মানিকের ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়াও শহরের পাঁচমাথা মোড়ের আমির হাদিস মুদি দোকানে ক্ষতিকর রং মেশানো এবং মেয়াদোত্তীর্ণ রঙিন চিপস্ বিক্রির অভিযোগে প্রতিষ্ঠান মালিক মুরাদের দুই হাজার টাকা, চিকলী বাজারে রবিউল হোটেলে নোংরা পরিবেশে ইফতার তৈরি, বাসি মিস্টি ও খাদ্য বিক্রির দায়ে রবিউলের দেড় হাজার, একই অভিযোগে কামারপুকুর বাজারে শহিদুল হোটেলের শহিদুল ইসলামের চার হাজার টাকা ও ফজলুল হকের দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় ওইসব হোটেলের খাবার ধ্বংস ও নোংরা থালা-বাসন নষ্ট করা হয়।
এদিকে শহরের নিয়ামতপুর জুম্মাপাড়া এলাকায় একটি বাড়িতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ক্ষতিকর রং মিশিয়ে লাচ্ছা তৈরি করার দায়ে শাহিন লাচ্ছা সেমাই কারখানার মালিক শাহিনের দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সর্বশেষ..



/* ]]> */