স্ট্রি ট ফু ড: চেভিশে

কোন দেশের স্ট্রিট ফুড বা রাস্তার খাবার সেরা? উঁহুঁ, সে বিতর্কে না গিয়ে আসুন জেনে নিই কোন দেশে বেড়াতে গিয়ে সেখানকার জনপ্রিয় স্ট্রিট ফুড না খেয়ে ফিরে আসার মানে জীবনের এক অনন্য অভিজ্ঞতা মিস করা! আজ চেভিশের কথা জানাচ্ছেন হাসানুজ্জামান পিয়াস
জনপ্রিয় সামুদ্রিক খাবার চেভিশে। লাতিন আমেরিকার প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূল অঞ্চলের জনপ্রিয় খাবার এটি। চেভিশের উৎপত্তি কোথায়? এটা নিয়ে অনেক বিতর্ক থাকলেও পেরুতে একে জাতীয় খাবার হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। জনপ্রিয়তা ও সুস্বাদুর জন্য পেরুতে একে জাতীয় ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এটি তৈরি করা হয় তাজা মাছ, সিটরাস জুস (লেবুজাতের ফলের জুস) ও চিলি পেপারে ম্যারিনেট করে।
কয়েক ঘণ্টা তাজা মাছের টুকরা লবণ, পেঁয়াজ ও সিলান্ট্রো (চাইনিজ শাকবিশেষ) সহযোগে লেবুর রসে ডুবিয়ে চেভিশে রাখা হয়। পরে তা খাওয়ার উপযোগী হয় ও কক্ষ-তাপমাত্রায় পরিবেশন করা হয়। চেভিশে সাধারণত হালকা খাবার হিসেবে খাওয়া হয়। স্বাদের জন্য কখনও কখনও যুক্ত হয় রান্না মিষ্টিআলুর টুকরা, লেটুস, ভুট্টা ও অ্যাভাকাডো। যেহেতু এটি তাপে রান্না করা হয় না, তাই ফুড পয়জন যেন না হয় এজন্য সবকিছু তাজা খেতে হয়।
প্রতœতত্ত্বীয় তথ্যমতে চেভিশে প্রায় দুই হাজার বছর আগে পেরুতে খাওয়া হতো। ঐতিহাসিকদের মতে মোরিশ নারীদের মাধ্যমে গ্রানাডা থেকে পেরুতে আসে এটি। বর্তমানে চেভিশে জনপ্রিয় আন্তর্জাতিক খাবার। বিশেষ করে ইকুয়াডোর, কলম্বিয়া, চিলি ও পেরুতে চেভিশের নানা বৈচিত্র্য দেখা যায়। এছাড়া হন্ডুরাস, সালভাদর, গুয়াতেমালা, যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো, পানামা ছাড়াও বেশ কিছু স্থানে অনন্য শৈলীতে চেভিশে তৈরি করা হয়।
চেভিশে স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী একটি খাবার। তবে এর প্রস্তুত প্রণালির জন্য সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়, নতুবা শরীর খারাপ হওয়ার আশঙ্কাও থাকে। কাঁচা সামুদ্রিক মাছ থেকে তৈরি হয় বলে ২০০৯ সালে প্রকাশিত য–ক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) ফুড কোড ও অন্যান্য গবেষণায় বলা হয়েছে, চেভিশের মাধ্যমে মাইক্রোবাইল হ্যাজার্ড হতে পারে। আমেরিকান ডায়েটেটিক অ্যাসোসিয়েশনের মতে, গর্ভবতীদের চেভিশে খাওয়া উচিত নয়।