স্পট মার্কেটে যাচ্ছে যমুনা ও এক্সিম ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক: রেকর্ড ডেটের কারণে স্পট মার্কেটে যাচ্ছে যমুনা ব্যাংক লিমিটেড ও এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড। কোম্পানিগুলোর রেকর্ড ডেট আগামী মঙ্গলবার। তার আগের দুই কার্যদিবস অর্থাৎ আগামী রোববার ও সোমবার শেয়ার স্পট মার্কেটে লেনদেন হবে। আর রেকর্ড ডেটের দিন শেয়ার লেনদেন বন্ধ থাকবে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
যমুনা ব্যাংক: ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটি ২২ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে তিন টাকা ৩৮ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) হয়েছে ২৫ টাকা ১২ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদন জন্য বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আগামী ২৪ জুন সকাল ১০টায় এবাকাস কনভেনশন সেন্টার, ৭১-৭২ ইস্কাটন গার্ডেন, রেড ক্রিসেন্ট, বোরাক টাওয়ার, রমনা, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ২২ মে।
গতকাল ছয় লাখ ১৪ হাজার ৭৭৮টি শেয়ার মোট ৩৩৪ বার লেনদেন হয়। এর বাজারদর ছিল এক কোটি ২১ লাখ ২৩ হাজার টাকা। শেয়ারদর দুই দশমিক ৪৯ শতাংশ বা ৫০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ১৯ টাকা ৬০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ১৯ টাকা ৫০ পয়সা। গত এক বছরে শেয়ারদর ১৬ টাকা ৬০ পয়সা থেকে ২৫ টাকা ৮০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে।
এক্সিম ব্যাংক: সদ্য সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটি সাড়ে ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। ওই সময় ইপিএস হয়েছে দুই টাকা ৩৪ পয়সা এবং এনএভি হয়েছে ১৯ টাকা ৫৮ পয়সা। ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য এজিএম আগামী ২৭ জুন বেলা ১১টায় রাওয়া কনভেনশন হল, ভিআইপি রোড, মহাখালী, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ২২ মে।
গতকাল ১৫ লাখ ৩০ হাজার ৯২টি শেয়ার মোট ৩৭৬ বার লেনদেন হয়। এর বাজারদর ছিল দুই কোটি দুই লাখ ৯৯ হাজার টাকা। শেয়ারদর দশমিক ৭৫ শতাংশ বা ১০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ১৩ টাকা ২০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল ১৩ টাকা ২০ পয়সা। গত এক বছরে শেয়ারদর ৯ টাকা ৯০ পয়সা থেকে ১৯ টাকা ৩০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে।
‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানি ২০০৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। দুই হাজার কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন এক হাজার ৪১২ কোটি ২৫ লাখ টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ এক হাজার ২৩৪ কোটি ৫২ লাখ টাকা। কোম্পানিটির মোট ১৪১ কোটি ২২ লাখ ৫১ হাজার ৬৮টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা/পরিচালকদের ৪১ দশমিক ৫৮ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ১৮ দশমিক ১৬ শতাংশ, বিদেশি চার দশমিক ৩৪ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৩৫ দশমিক ৯২ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।