সুস্বাস্থ্য

স্বাস্থ্যসচেতনতায় রোবোটিক ডাস্টবিন

আপনি হাতে ময়লা-আবর্জনা নিয়ে এলেন। সামনে থাকা ডাস্টবিনের ঢাকনা স্বয়ংক্রিয়ভাবে খুলে গেল। ময়লা ফেলার পর আবার বন্ধ হয়ে গেল ডাস্টবিনের মুখ। হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন। রোবোটিক ডাস্টবিনের কথাই বলছি। স্বাস্থ্যসচেতনতায় এমন ডাস্টবিন আবিষ্কার করে সাড়া ফেলেছে ফেনী ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী আল আমিন ফাহিম ও ৯ম ব্যাচের রাব্বি আহমেদ। তাদের সহযোগিতা করেছেন বিভাগের শিক্ষকরা।
এ ধরনের ডাস্টবিন দুর্গন্ধ ও রোগ-জীবাণু ছড়ানো রোধ করবে। পাশাপাশি যত্রতত্র ময়লা না ফেলার বিষয়ে সচেতন করবে জনসাধারণকে এমনটাই মনে করছেন আবিষ্কারকরা। সরকারি সহযোগিতা পেলে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ব্যাপক হারে তৈরি করা যাবে এমন ডাস্টবিন।
শিক্ষার্থীদের এমন আবিষ্কারে খুশি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, মৎস্যবিজ্ঞানী ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. মো. সাইফুদ্দিন শাহ। তিনি বলেন, প্রযুক্তির উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে মানবজীবনের সব স্তরে এখন ক্রমবর্ধমান হারে বাড়ছে রোবটের ব্যবহার। মানুষের কাজ সহজ করতে ও তথ্য-প্রযুক্তি খাতে দেশকে এগিয়ে নিতে রোবট নিয়ে প্রতিনিয়ত বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে আমাদের শিক্ষার্থীরা রোবোটিকস ডাস্টবিন আবিষ্কার করেছে।

শাহাদাত হোসেন তৌহিদ, ফেনী

সর্বশেষ..