বিশ্ব প্রযুক্তি

স্মার্টফোনের বিজ্ঞাপন নিয়ে মামলায় স্যামসাং

শেয়ার বিজ ডেস্ক: স্মার্টফোনের পানিনিরোধী ফিচার নিয়ে বিজ্ঞাপনে ভুল তথ্য দেওয়ায় স্যামসাংয়ের বিরুদ্ধে মামলা করেছে অস্ট্রেলিয়ান কম্পিটিশন অ্যান্ড কনজিউমার কমিশন (এসিসিসি)। এসব বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে গ্রাহককে ভুল পথে নেওয়া হয়েছে বলে দাবি করা করা হয়েছে। খবর: ভার্জ।
এসিসিসির মামলায় বলা হয়, ২০১৬ সাল থেকে সুইমিং পুল এবং সাগরের মতো অনুপযুক্ত পরিবেশে ফোনের পানি নিরোধী ফিচার দেখিয়ে আসছে স্যামসাং। এ ধরনের উপস্থাপনার কোনো ভিত্তি নেই বলে দাবি করেছে সংস্থাটি।
এক বিবৃতিতে এসিসিসি চেয়ারম্যান রড সিমস বলেন, ‘এসিসিসি দাবি করছে স্যামসাং বিজ্ঞাপনে মিথ্যা এবং ভুলভাবে গ্যালাক্সি ফোনকে উপস্থাপন করেছে। ডিভাইসগুলো সাগরের পানি এবং সুইমিং পুলের মতো সব ধরনের পানিতে ব্যবহার করা যাবে আর এতে ফোনের দীর্ঘস্থায়ীতায় এর কোনো প্রভাব পড়বে না এমনটা বোঝানো হয়েছে। কিন্তু বিষয়টা আসলে তেমন নয়।
৩০০-এর বেশি বিজ্ঞাপন পর্যবেক্ষণ করে স্যামসাংয়ের বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। অনেক গ্যালাক্সি ফোনের বিজ্ঞাপনে দেখানো হয়েছে ডিভাইসে আইপি৬৮ রেটিংয়ের পানি নিরোধী ফিচার রয়েছে। এর মানে ডিভাইসটি পানির নিচে দেড় মিটার গভীরতা পর্যন্ত ৩০ মিনিট সচল থাকবে। কিন্তু এসিসিসির দাবি এতে সব ধরনের পানির কথা বলা হয়নি। আর স্যামসাং গ্যালাক্সি ১০ সমুদ্র পাড়ে ব্যবহার করতে নিষেধ করা হয়েছে।
সিমস বলেন, ‘গ্রাহকদের আকৃষ্ট করতে স্যামসাং এমন সব পরিস্থিতিতে গ্যালাক্সি ফোনের ব্যবহার দেখিয়েছে, যেখানে আসলে ডিভাইসটি ব্যবহার করা উচিত নয়।’ স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা তাদের বিজ্ঞাপনের সঙ্গে থাকবে এবং মামলা মোকাবিলা করবে।
চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানয়ারি-মার্চ) স্যামসাং ইলেকট্রনিকস গত দুই বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম মুনাফা করেছে। মেমরি চিপের ওপর নির্ভরশীলতা, প্যানেল বিক্রি কমে যাওয়া এবং স্মার্টফোন বাজারে প্রতিযোগিতার কারণে মুনাফায় নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে।
প্রথম প্রান্তিকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্মার্টফোন ও মেমোরি চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির মুনাফা হয়েছে ছয় দশমিক দুই ট্রিলিয়ন ওন বা পাঁচ দশমিক পাঁচ বিলিয়ন ডলার। আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় এটি ৬০ শতাংশ কম। পূর্বাভাস ছিল মুনাফা হবে ছয় দশমিক আট ট্রিয়িয়ন ওন।

সর্বশেষ..