প্রথম পাতা

হজের টিকিট বিক্রি শুরু বিমানের

টিকিট ছাড়া ভিসা মিলবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক: চলতি বছরের হজযাত্রীদের জন্য টিকিট বিক্রি শুরু করেছে রাষ্ট্রায়ত্ত উড়োজাহাজ সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। গতকাল সোমবার থেকে হজ ফ্লাইটের টিকিট বিক্রির এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিমানের জনসংযোগ বিভাগ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।
এছাড়া সরকারি-বেসরকারি হজযাত্রীদের ভিসার জন্য আশকোনা হজ ক্যাম্পে পাসপোর্ট জমা দেওয়ার আগে আবশ্যিকভাবে বিমান টিকিট কিনতে হবে। টিকিট ছাড়া হজ ভিসার জন্য কোনো পাসপোর্ট জমা নেওয়া হবে না। বিমান টিকিটের সংশ্লিষ্ট হজযাত্রী কোন দিন কোন ফ্লাইটে কয়টার সময় মক্কা কিংবা মদিনাতে যাচ্ছেন, তার উল্লেখ থাকতে হবে।
চলতি বছর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস এবং সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইনস উভয়কে হজ এজেন্সির কাছে টিকিট বিক্রি করতে হবে। নির্দিষ্ট কোনো এজেন্সির কাছে টিকিট বিক্রি করা যাবে না। টিকিট ঠিকমতো বিক্রি হচ্ছে কি না, কোন এয়ারলাইনসে কোন দিন কোন সময় কত যাত্রী যাচ্ছেন তা মনিটরিং করার জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয় কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে তিনটি মনিটরিং টিম গঠন করা হয়েছে।
ধর্ম মন্ত্রণালয় প্রকাশিত হজ বুলেটিন সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রোববার পর্যন্ত ১১৭টি এজেন্সি মোট ১৯ হাজার ১২৩ জন হজযাত্রী বিমান টিকিটের জন্য পে-অর্ডার করেছেন। সোমবার থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস হজযাত্রীদের জন্য টিকিট বিক্রি শুরু করেছে। আজ থেকে সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইনস টিকিট বিক্রি শুরু করবে।
বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আগামী ৪ জুলাই থেকে হজ ফ্লাইট শুরু করবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। ৩২ দিনে ১৫৭টি ডেডিকেটেড ও ৩২টি শিডিউল ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান। প্রি-হজ ফ্লাইট শেষ হবে আগামী ৫ আগস্ট। ফিরতি হজ ফ্লাইট ১৭ আগস্ট থেকে শুরু হয়ে শেষ হবে ১৪ সেপ্টেম্বর। হজ ফ্লাইটে নিজস্ব বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর উড়োজাহাজ ব্যবহার করবে বিমান।
তথ্যমতে, চলতি বছর হজে যাবেন এক লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। এর মধ্যে ৬৩ হাজার ৫৯৯ জনকে পরিবহন করবে বিমান।
এ বছরই প্রথম ঢাকা থেকে মদিনায় ১১টি হজ ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। এছাড়া চট্টগ্রাম থেকে জেদ্দায় ১০টি, সিলেট থেকে জেদ্দায় তিনটি, চট্টগ্রাম থেকে মদিনা সাতটি ডেডিকেটেড হজ ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। বাকি ১২৬টি ফ্লাইট ঢাকা থেকে জেদ্দায় নিয়ে যাবে হজযাত্রীদের।
এবারই প্রথমবারের মতো ঢাকায় ইমিগ্রেশন করা হবে হজযাত্রীদের। ফলে সৌদি আরবে গিয়ে ইমিগ্রেশনের জন্য লাইনে দাঁড়াতে হবে না তাদের। তবে এ কারণে ফ্লাইটের একদিন আগেই হজযাত্রীদের তথ্য সৌদি আরবে পাঠাতে হবে। ওই সময়ের পর ফ্লাইটে নতুন করে যাত্রী নেওয়া যাবে না। এ কারণে হজ এজেন্ট ও যাত্রীদের তাদের ফ্লাইট যাওয়ার ২৪ ঘণ্টা আগেই যাত্রার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।
জানা যায়, নির্ধারিত শিডিউলের বাইরে অতিরিক্ত সøট দেবে না সৌদি সরকার। জটিলতা এড়াতে এ বছর কোনো যাত্রী হজ ফ্লাইটের যাত্রা বাতিল করলে বা সময় পরিবর্তন করলে জরিমানা আদায় করবে বিমান। যাত্রা বাতিলের ক্ষেত্রে ৩৫০ ইউএস ডলার ও যাত্রা তারিখ পরিবর্তনের ক্ষেত্রে সময় ভেদে ২০০ থেকে ৩০০ ডলার দিতে হবে।
সুষ্ঠুভাবে হজ ফ্লাইট পরিচালনা করতে বিমানের পক্ষ থেকে সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। হজ এজেন্সি ও হজযাত্রীরা যথাসময়ে ফ্লাইটের টিকিট সংগ্রহ করলে কোনো ধরনের জটিলতা হবে না বলেও জানানো হয়।

ট্যাগ »

সর্বশেষ..



/* ]]> */