হিসাব ও কর

মিজানুর রহমান শেলী: অনেক অনেক প্রতিনিধিত্বকারী কোম্পানির কথা বলা যায়, যারা তাদের আয়ের হিসাবকে অবচয়ের কারণে বিভিন্ন ধরনের চার্জ-মুক্ত করেছে। এ জন্য তারা তাদের প্লান্ট অ্যাকাউন্টকে এক ডলারে নির্ধারণ করেছে। এক্ষেত্রে তাদের বিশেষ এক কমিটি থেকে জানানো হয়েছে, যদি তাদের প্লান্ট অ্যাকাউন্টের মূল্য মাত্র এক ডলার হয়ে থাকে, তবে ইউএস স্টিল করপোরেশনের ফিক্সড অ্যাসেট অনেক বেশি মূল্যমানের হয়ে উঠবে, যা তাদের অঙ্কের চেয়ে কম। হ্যাঁ, অবশ্য এটাকে এখনকার দিনের একটি বড় ও সুপরিচিত ফ্যাক্ট বলা যেতে পারে। এটা এমন ব্যাপার যে, অনেক প্লান্ট বাস্তবে ঋণদায়ের মধ্যে পড়ে রয়েছে। সে তুলনায় সম্পদ অনেক ভালো অবস্থানে রয়েছে। এই বিষয়টি যে কেবল অবচয় চার্জের জন্যই প্রয়োগযোগ্য তা কিন্তু বলা যায় না। আমরা দেখতে পেয়েছি এই চার্জটি ট্যাক্সের ক্ষেত্রে যেমন করে ভূমিকা রাখে, তেমনি ব্যবসা ব্যবস্থাপনার অন্যান্য খরচের খাতিরেও ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করে। তাছাড়া এই বিনিয়োগী ব্যবসায় আরও অনেক খরচের খাত রয়েছে। এই চার্জটি খরচের কোনো খাতকেই বাদ রাখে না, প্রায় সব খাতেই কোনো না কোনো প্রভাব বিস্তার করেই থাকে। এই অনুসারে, বোর্ড সিদ্ধান্ত নিয়েছে সবকিছুকে সম্পদের নিম্নমূল্য কিংবা আনুমানিক মূল্যের সম্ভাব্য নিম্নপর্যায়ে নিয়ে চলে আসাই শ্রেয়। এখন থেকে সেই কাজটিই করা হবে বলে তারা বিশ্বাস করছেন। এই নীতি বা গৃহীত সিদ্ধান্ত এক হাজার ৯৩৫টি প্রতিবেদনে প্রাথমিকভাবে পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে। এমনকি আরও বেশি অবাক হতে হয় যখন দেখি ফিক্স অ্যাসেট অনেক বেশি কমিয়ে আনা হয়েছে। এক্ষেত্রে একটি নজির দেখালে বোঝা যাবে: ১৩৩ কোটি ৮৫ লাখ ২২ হাজার ৮৫৮ ডলার ৯৬ সেন্টকে সার্বিকভাবে কমিয়ে নিয়ে ১০০ কোটি ডলার করা হয়েছে।
এই পরিবর্তনটিকে আসলে এড়িয়ে চলার কোনো উপায় নেই নিশ্চয় একটি বড় পরিবর্তন বা প্রভাব ফেলতে সক্ষম। এখানে একটি বড় সুবিধা লুকিয়ে আছে। সুবিধাটা হলো এটা একটি প্রামাণিক বিষয় হয়ে দাঁড়াবে। প্লান্ট অ্যাকাউন্ট যখনই মলিন হয়ে আসবে, তখন সম্পদের কমিয়ে আনা নিম্নমূল্য বা লায়াবিলিটিজ ধারাবাহিকভাবে নিচের দিকে নেমে আসতে থাকবে। তাই এখানে বার্ষিক ৪৭০০০০০০ ডলারের কিছু অবচয় চার্জ বর্তমান থাকলেও একটি বার্ষিক উপচিত ক্রেডিট হবে পাঁচ শতাংশের অনুপাতে, যাকে অঙ্কে লিখলে দাঁড়াবে ৫০০০০০০০ ডলার। এই পরিস্থিতিটা আয়-উন্নয়নকে বাড়িয়ে তুলবে। তাতে বার্ষিক আয় ৯৭০০০০০০ ডলারের কম হবে না। দ্বিতীয় বিষয় হলো এখানে কমন স্টকের শতকরা মূল্য দাঁড়াবে এক সেক। এমনকি বেতন ও ভাতায় খরচ একটি ঐচ্ছিক ওয়ারেন্টে গিয়ে ঠেকবে।
যাহোক, বহু করপোরেশন তাদের মাথাপিছু খরচকে ব্যাপক হারে কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। এই কাজটি তারা করেছে, বড় কর্মকর্তাদের বেতন হিসেবে ক্যাশ পরিশোধ করেনি। তারা তাদের স্টকের কোনো এক বা একাধিক অংশ তাদের দিয়ে কিনিয়েছে। নিঃসন্দেহে এই অংশটি ছোট নয়। বেশ গুরুত্বের সঙ্গেই বলতে হয়, এই অংশখানি অনেক বড়। উল্লেখ্য, এই স্টকগুলো আয়ের ওপর কোনো চার্জ খরচ করছে না। ফলে কোম্পানি এখানে ব্যাপকহারে লাভবান হচ্ছে। নিজেদের মধ্যেই স্টক এভাবে কেনাবেচা করে তারা একটি বিশাল পরিসরে সুবিধা আদায় করে নিয়েছে। এটাকে নিশ্চয় বিনিয়োগী ব্যবসার ভালো সাফল্যই বলতে হবে। এটা নিয়ে আমি আগেও আলোচনা করেছি। আধুনিক কৌশলের যাবতীয় সম্ভাবনা কি আমরা পুরোপুরি শিখে নিতে বা রপ্ত করতে পেরেছি। না! আমরা পারিনি। আমরা এখনও সবাই এর পুরো বিষয়টি উপলব্ধিও করতে পারিনি। বাহ্যিকভাবে যতটুকু আমরা হৃদয়ে নিতে পেরেছি, তাতে ঠিক পর্যাপ্ততা বলা চলে না। এই ধারণা থেকে বোর্ড অব ডিরেক্টরেরা নিচের সুবিধাগুলো গ্রহণ করেছেন করপোরেশনের সামগ্রিক কর্মীদের আয় উপভোগ করা কর্মীদের অধিকার। আবার তাদের কমন স্টক কেনার অধিকারও রয়েছে। কমন স্টকের বিনিময়ে বেতন এখানে প্রতিস্থাপিত হয়ে যায়। তারা এখানে প্রতি শেয়ার ৫০ ডলারে খরিদ করার অধিকার রাখে। দেখা যায় যে অনেক কর্মী একবারই মেয়ার খরিদ করে। সে ক্ষেত্রেও তারা সমান অধিকার পেয়ে থাকে। তারাও প্রতিটি শেয়ার ৫০ ডলারে কিনে থাকে। এই সুযোগটাও তারা বেতনের বিনিময়ে পেয়ে থাকে। আবার দেখা যায় যে, কর্মীদের চলতি বেতনের অনুপাতেও তারা স্টক কেনার সুযোগ পেয়ে থাকে। দেখা যায় কমন স্টকের শতকরা মূল্য কমে আসে এবং কমে তা এক সেকে গিয়ে দাঁড়ায়।
এই নতুন পরিকল্পনার বিস্ময়কর সুবিধা মোটামুটিভাবে নিচের তালিকায় উঠে এসেছেÑ
ক. করপোরেশনের পে-রোল সামগ্রিকভাবে নিঃশেষ করা হবে। এক্ষেত্রে সঞ্চয়ী থাকবে ২৫০০০০০০০ ডলার বার্ষিক হারে। এই অঙ্কটার ভিত্তি হবে ১৯৩৫ সালের পরিচালনা কাঠামো।
খ. একই সময়ে, আমাদের সব কর্মীর কার্যকরী বেতন কয়েক গুণে বেড়ে যাবে, কেননা প্রতিটি শেয়ারে আমাদের বড় আয়ের পরিমাণ আমাদের কমন স্টকের আওতায় দেখা যাবে এই নতুন পদ্ধতিগুলোর মাধ্যমে। এটা নিশ্চিত যে শেয়ারগুলো বাজারে একটি ভালো ভূমিকা রাখবে। তাদের প্রভাব হবে শক্তিশালী। দামের দিক দিয়ে এর প্রভাবকে বিশেষভাবে বিচার করতে হবে। এই দশাটি ৫০ ডলারের প্রতি শেয়ারের ঐচ্ছিক কাঠামোটিকে অতিক্রম করে অনেক দূর এগিয়ে যাবে। তখন যেন এটার অতীত চেনাই কষ্টকর হয়ে যাবে। একেবারে পুরোদস্তুর প্রস্তুত করা শিক্ষার মাধ্যমে এই সুযোগের মূল্যবিষয়ক কোনো উপলব্ধি আদায় করার জন্য বিভিন্ন উপায়ে ব্যাপকহারে বর্তমান ক্যাশ ভাতার ওপর প্রতিস্থাপিত হয়।
গ. করপোরেশন অতিরিক্ত বড় বার্ষিক মুনাফাকে বাস্তবায়ন করবে। এক্ষেত্রে তারা এই ওয়ারেন্টগুলো ব্যবহার করবে। যেহেতু কমন স্টকের শতকরা মূল্য এক সেকে গিয়ে আটকে যাবে, অর্থাৎ নির্দিষ্ট থাকবে, সেহেতু সেখানে ৪৯.৯৯ ডলার প্রতি শেয়ারে অর্জিত হবে। এটা অর্জন করবেন গ্রাহকেরা। এবার সংরক্ষণশীল অ্যাকাউন্টের কথায় আসা যাক। এই অ্যাকাউন্টের লাভকে আয়ের অ্যাকাউন্টের লাভের সঙ্গে গুলিয়ে ফেলার কোনো অবকাশ থাকে না। বরং এই দুটো আয়কে আলাদা করে বিচার করা হবে। এটা হবে মূলধন অতিক্রমের ক্রেডিট।
ঘ. করপোরেশনের ক্যাশের অবস্থা হবে খুবই শক্তিশালী। বর্তমানের বার্ষিক ক্যাশের খরচ যেখানে ১৫০০০০০০০ ডলার বেতন বাবদ ১৯৩৫ সালের ভিত্তিতে, সেখানে বার্ষিক ক্যাশ অন্তঃপ্রবাহ হবে ২৫০০০০০০০ ডলার। এটা করতে গ্রাহক ওয়ারেন্ট ব্যবহার করা হবে। কমন স্টকে এই গ্রাহক ওয়ারেন্টের সংখ্যা হবে ৫০০০০০০টি। এই কোম্পানির বড় আয় ও শক্তিশালী ক্যাশ অবস্থান স্বাধীনভাবে ডিভিডেন্ড পরিশোধের ব্যাপারে অনুমোদন দিয়ে থাকে।

এই দর্শন রচনাবলি সম্পাদনা করেছেন লওরেন্স এ. কানিংহাম
অনুবাদক: গবেষক, শেয়ার বিজ।