কোম্পানি সংবাদ

১৪ মাসের মধ্যে সর্বনিন্ম লেনদেন

নিজস্ব প্রতিবেদক: উভয় পুঁজিবাজারে গতকাল সূচক, শেয়ারদর ও লেনদেনে বড় পতন হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল ৬৩ শতাংশ কোম্পানির দরপতনে প্রধান সূচকের প্রায় ৩০ পয়েন্ট পতন হয়। সেই সঙ্গে লেনদেন কমে আড়াইশ’ কোটির ঘরে নেমে এসেছে। যা গত ১৪ মাসের মধ্যে সর্বনিন্ম লেনদেন। এর আগে ২০১৮ সালের ২৫ মার্চ ২২৪ কোটি টাকার ঘরে লেনদেন হয়। এছাড়া ২০০ কোটির ঘরে বেশ কয়েকবার লেনদেন নামলেও গতকালের ২৫১ কোটি টাকাই সর্বনিন্ম লেনদেন। লেনদেনের শুরুতে আধঘণ্টা সূচক ইতিবাচক থাকলেও তারপর থেকে বিক্রির চাপ বাড়তে থাকায় সূচক নেমে যেতে থাকে। শেষ পর্যন্ত এ পতন অব্যাহত থাকে। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।
বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৯ দশমিক ৯১ পয়েন্ট বা দশমিক ৫৬ শতাংশ কমে পাঁচ হাজার ২১৭ দশমিক ৯১ পয়েন্টে অবস্থান করে।
ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ছয় দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা দশমিক ৫৭ শতাংশ কমে এক হাজার ২০৩ দশমিক ৩৬ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক ১০ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট বা দশমিক ৫৯ শতাংশ কমে এক হাজার ৮২৫ দশমিক ৫১ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন তিন লাখ ৮৪ হাজার ৫৯৫ কোটি টাকা হয়। ডিএসইতে গতকাল লেনদেন হয় ২৫১ কোটি ৩৬ লাখ ৪৫ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩০৫ কোটি ৩ লাখ ১৭ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ৫৩ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। এদিন ৮ কোটি ৪৮ লাখ ৩১ হাজার ৮৫৬টি শেয়ার ৭২ হাজার ৪৭০ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৪৭ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৭৬টির, কমেছে ২১৯টির ও অপরিবর্তিত ছিল ৫২টির দর।
গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ফরচুন সুজ। কোম্পানিটির ১৫ কোটি ২২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে ৫০ পয়সা। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা যমুনা ব্যাংকের আট কোটি ৬৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর অপরিবর্তিত ছিল। ব্র্যাক ব্যাংকের আট কোটি ৫৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে এক টাকা ৪০ পয়সা। এরপরের অবস্থানে থাকা বিএসসির সাত কোটি আট লাখ টাকা, মুন্নু সিরামিকের ছয় কোটি ২৬ লাখ টাকা, পাওয়ার গ্রিডের পাঁচ কোটি ৯০ লাখ টাকা, গ্রামীণফোনের পাঁচ কোটি ৬০ লাখ টাকা, লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের পাঁচ কোটি ৫৭ লাখ টাকা, স্কয়ার ফার্মার চার কোটি ৯৮ লাখ টাকা, এ্যাসকোয়ার নিটের চার কোটি ৬৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।
সাত দশমিক ৪৬ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে আইসিবি এএমসিএল সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড। এরপরে লিগ্যাসি ফুটওয়ারের দর ছয় দশমিক ৬৬ শতাংশ, বঙ্গজের দর চার দশমিক ৪৩ শতাংশ, পপুলার লাইফের দর চার দশমিক ৩৫ শতাংশ, এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর চার শতাংশ, স্টান্ডার্ড সিরামিকের দর চার শতাংশ, রহিম টেক্সটাইলের দর তিন দশমিক ৬১ শতাংশ বেড়েছে। এরপরের অবস্থানগুলোতে ছিল স্টান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্স, জেনেক্স ইনফোসিস লিমিটেড ও এনসিসি ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড।
অন্যদিকে আরএন স্পিনিংয়ের দর ছয় শতাংশ কমেছে। আরামিট সিমেন্টের দর পাঁচ দশমিক ৮২ শতাংশ, ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালেন্সড ফান্ডের দর পাঁচ দশমিক ৭১ শতাংশ, ফ্যামিলি টেক্সের দর চার দশমিক ৬৫ শতাংশ, এনএলআই ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের দর চার দশমিক ৬৫ শতাংশ, নাভানা সিএনজির দর চার দশমিক ৩৪ শতাংশ, সিএপিএম বিডিবিএল মিউচুয়াল ফান্ডের দর চার দশমিক ২৮ শতাংশ, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্সের দর চার দশমিক ১৩ শতাংশ, জিলবাংলা সুগার মিলের দর চার দশমিক ১০ শতাংশ, অ্যাপোলো ইস্পাতের দর চার শতাংশ কমেছে।
সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৫৬ দশমিক ৪৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৫৮ শতাংশ কমে ৯ হাজার ৬৬৫ দশমিক শূন্য দুই পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৯৩ দশমিক শূন্য সাত পয়েন্ট বা দশমিক ৫৭ শতাংশ কমে ১৫ হাজার ৯৬২ দশমিক ২৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২২৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৫২টির, কমেছে ১৪২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৯টির দর।
সিএসইতে এদিন ১৪ কোটি ৫৪ লাখ ৮৭ হাজার ৯৮২ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ১৫ কোটি ৮৪ লাখ ৭৪ হাজার ৫৪৯ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে এক কোটি ২৯ লাখ টাকা। সিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে ডরিন পাওয়ার।

সর্বশেষ..