১৮ অক্টোবর শুরু তৃতীয় আইসিটি এক্সপো

নিজস্ব প্রতিবেদক: হার্ডওয়্যার শিল্প বিকাশে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১৮ অক্টোবর (বুধবার) তৃতীয়বারের মতো শুরু হতে যাচ্ছে ‘বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো’। মেলাটি পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল উদ্বোধন করবেন বলে কথা রয়েছে।

বুধবার সকালে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলে এক সংবাদ সম্মেলনে এবারের আইসিটি এক্সপোর বিস্তারিত তুলে ধরে এক্সপোর আয়োজক বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস)। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পুরো প্রদর্শনীতে উপস্থাপন করা হবে  লোকাল ম্যানুফ্যাকচারস, আইওটি ও ক্লাউড, প্রডাক্ট শোকেস, ইনোভেশন, মিট উইথ ইন্টারন্যাশনাল ম্যানুফ্যাকচারারস, ডিজিটাল লাইফস্টাইল, মেগা সেলস, সেমিনার, বিটুবি ম্যাচমেকিং ও হাই-টেক পার্কÑএরকম ১০ জোনে ভাগ করা হয়েছে। এতে বাংলাদেশের পাশাপাশি অংশ নেবে তাইওয়ান, মালয়েশিয়া, রাশিয়া ও জাপানসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনের তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ, উৎপাদক ও উদ্যোক্তা।

দর্শনার্থীদের জন্য ডিজিটাল সেবা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, গেমিং, সেলফি, কুইজ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতাও থাকছে এবারের প্রদর্শনীতে। মেলায় প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সম্পূর্ণ বিনামূল্যে প্রবেশ করা যাবে। অনুষ্ঠানের শেষ দিনে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সেরা প্রকল্পগুলোকে দেওয়া হবে অ্যাওয়ার্ড।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদফতরের পাশাপাশি কন্ট্রোলার অব সার্টিফায়িং অথরিটিজ (সিসিএ) এ আয়োজনের সহযোগী। বেসিস, বিএসিসিও, সিটিও ফোরাম, ই-ক্যাব রয়েছে সহযোগী হিসেবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘মার্কেট সাইজ ও পার্চেজ ক্যাপাসিটির দিক থেকে বাংলাদেশের আইটি মার্কেট পৃথিবীর অষ্টম বৃহত্তম। দুই বিলিয়ন ডলারের হার্ডওয়্যার মার্কেটের পাশাপাশি এক বিলিয়ন ডলারের সফটওয়্যার মার্কেট রয়েছে। বিশ্বের যে কোনো মাল্টিন্যাশনাল হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার কোম্পানির কাছে আকর্ষণীয় ডেসটিনেশন হলো বাংলাদেশ। দুটি খাতে আমাদের সাফল্য তুলে ধরতে প্রতিবারের মতো এবারও আমরা আয়োজন করছি আইসিটি এক্সপো।’

তিনি বলেন, ‘প্রথম আইসিটি এক্সপো থেকে হার্ডওয়্যার ইন্ডাস্ট্রি তৈরিতে বাধা কোথায়Ñসে ধারণা আমরা নিয়েছি। হার্ডওয়্যার ইকুইপমেন্ট উৎপাদনের মাধ্যমে আমদানি প্রবণতা আরও কমিয়ে আনতে হবে।’

আইসিটি এক্সপোর দ্বিতীয় দিন ১৯ অক্টোবর থেকে বাংলাদেশে যাত্রা করবে পেপাল। অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেমটির যাত্রার এই আনুষ্ঠানিকতা হবে আইসিটি এক্সপোতেই।

প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন বলে জানান পলক।

পেপাল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘পেপাল ইতোমধ্যে তাদের একজন প্রতিনিধি বাছাই করেছে। বাংলাদেশ থেকে কত পরিমাণ ডেটা কীভাবে ট্রান্সফার হচ্ছে, তা তিনি পরীক্ষা করবেন।

সোনালী, রূপালী, ডাচ্-বাংলা, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকসহ ৯টি ব্যাংকের সঙ্গে আমাদের চুক্তি হয়েছে। এর যে কোনো ব্রাঞ্চ থেকে পেপালের টাকা ট্রানজেকশন করতে পারবেন আইটি উদ্যোক্তারা।’

অনুষ্ঠানে এবারের আইসিটি এক্সপোর বিস্তারিত তুলে ধরে বিসিএস সভাপতি আলী আশফাক বলেন, ‘মেক ইন বাংলাদেশ’ শিরোনামে এবারের আয়োজনটি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পুরোটাজুড়েই হবে।