৩০ বছর পর সুদানের ক্ষমতা হারালেন প্রেসিডেন্ট বশির

শেয়ার বিজ ডেস্ক: দীর্ঘ ৩০ বছর পর ক্ষমতা হারালেন সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশির। তাকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে আটক করা হয়েছে। এছাড়া দেশটির সেনাবাহিনী-নিয়ন্ত্রিত অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করার কথা জানিয়েছেন দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী। খবর: আল জাজিরা, রয়টার্স।
প্রতিরক্ষামন্ত্রী আহমেদ আওয়াদ এবনে আউফ টেলিভিশনে দেওয়া এক ঘোষণায় বলেছেন, রাষ্ট্রের ক্ষমতা সামরিক বাহিনী নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। এছাড়া ওমর আল বশিরকে আটক করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তিনি আরও জানিয়েছেন, তিন মাসের রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে সুদানে। এছাড়া সামরিক কাউন্সিল আগামী দুই বছর দেশ শাসন করবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।
এ ঘোষণার পর দেশটির রাজধানী খার্তুমজুড়ে হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে আসেন। এ সময় তারা আনন্দ-উল্লাসে মেতে ওঠেন। উত্তর দারফুরের উৎপাদন ও অর্থনীতিমন্ত্রী আদেল মাহজুব হুসেইন বলেছেন, প্রেসিডেন্ট বশিরকে সরানোর পর ক্ষমতা অর্পণের জন্য একটি সামরিক পরিষদ গঠনের ব্যাপারে কথা চলছে। এছাড়া সামরিক রাজধানী খার্তুমে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।
বশিরের বিরুদ্ধে গত ডিসেম্বর থেকে বিক্ষোভ চলে আসছে। এরই আলোকে ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হলেন তিনি। গতকাল বৃহস্পতিবার দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সামনে হাজার হাজার লোক জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করলে সেনাবাহিনী ওই এলাকা ঘিরে রাখে। পরে তার ক্ষমতা হারানোর খবর শুনে আনন্দ-উল্লাসে মেতে ওঠেন সুদানিরা।
১৯৮৯ সাল থেকে ৩০ বছর ধরে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা দখলে রেখেছেন বশির। সাম্প্রতিক বিক্ষোভে বিপুল মানুষ অংশ নেওয়ায় তার ক্ষমতা নড়বড়ে হয়ে ওঠে। সবশেষ তিন দশকে বড় ধরনের চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ায় ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হলেন তিনি।
চলতি সপ্তাহের প্রথম দিকে সৈন্যরা গোয়েন্দাসংস্থা ও নিরাপত্তা বাহিনীর উর্দি পরা সদস্যদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়েছিল। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সামনে জড়ো হওয়া বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করলে সেনাসদস্যরা এতে বাধা দেন। ওইদিন সংঘর্ষে অন্তত ১১ জন নিহত হন।