৮৮০ মিলিয়ন ডলারে মানিগ্রাম কিনছে আলিবাবা

শেয়ার বিজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অর্থ লেনদেন কোম্পানি মানিগ্রাম ইন্টারন্যাশাল ইনকরপোরেশনকে ৮৮০ মিলিয়ন ডলারে কিনছে চীনের ই-কমার্স জায়ান্ট আলিবাবার অঙ্গপ্রতিষ্ঠান অ্যান্ট ফিন্যান্সিয়াল। বিশ্বের ২০০ দেশে মানিগ্রামের প্রায় তিন লাখ ৫০ হাজার আউটলেট রয়েছে। অন্যদিকে অ্যান্ট ফিন্যান্সিয়ালের প্রায় ৬৩০ মিলিয়ন গ্রাহক রয়েছেন। খবর বিবিসি।

আলিবাবার এ-সংক্রান্ত ক্রয় প্রস্তাব মানিগ্রামের পরিচালনা পর্ষদ অনুমোদন দিয়েছে। তবে এ প্রস্তাব বাস্তবায়নের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বৈদেশিক বিনিয়োগ কমিটির অনুমোদন দরকার হবে। কমিটি চুক্তি পর্যালোচনা করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

অ্যান্ট ফিন্যান্সিয়ালের প্রধান নির্বাহী এরিক জিং বলেন, এ দুই কোম্পানির অধিগ্রহণ বিশ্বব্যাপী গ্রাহকদের অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেবে। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ভারত, মেক্সিকো ও ফিলিপাইনের মতো বড় অর্থনীতির দেশগুলোয় গ্রাহককে আরও উন্নত সেবা এবং নিরাপত্তা দেওয়া যাবে।

চীনে অনলাইনে অর্থ পরিশোধ শিল্পের একটা বড় বাজার শেয়ার দখল করে আছে অ্যান্টি ফিন্যান্সিয়াল। এ অধিগ্রহণ আলিবাবার প্রতিষ্ঠানটির ব্যবসা সহজ করে দেবে এবং বিদেশেও এর অংশগ্রহণ সহজ করবে।

অধিগ্রহণের খবরে যুক্তরাষ্ট্রের পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত মানিগ্রামের শেয়ার দর প্রায় ৯ শতাংশ বেড়েছে।

এদিকে সম্প্রতি শপথ গ্রহণের আগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একক চীন নীতি নিয়ে মন্তব্য করায় দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ট্রাম্প তার নির্বাচনী প্রচারে চীনের পণ্য রফতানিতে শাস্তিমূলক শুল্কারোপের হুমকি দিয়েছিলেন। দুই দেশের কোম্পানির মধ্যে অধিগ্রহণের সিদ্ধান্ত এ উত্তেজনার মধ্যে ইতিবাচক দেখছেন বিশ্লেষকরা।

ডিসেম্বরে শেষ হওয়া প্রান্তিকে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় চীনের ই-কমার্স জায়ান্ট আলিবাবার আয় বেড়েছে ৫৪ শতাংশ। অনলাইন বাজারে বিক্রির পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় এই আয় সম্ভব হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ওই প্রান্তিকে রেভিনিউ বেড়ে সাত দশমিক সাত বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে।

তথ্যমতে, অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকে কোম্পানিটির নিট আয় আগের বছরের একই প্রান্তিকের চেয়ে ৪৩ শতাংশ বেড়ে দুই দশমিক ৫৭ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে।

আলিবাবা গ্রুপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড্যানিয়েল জাং বলেন, গত প্রান্তিকের এ চিত্র এটাই প্রমাণ করে যে, চীনজুড়ে আলিবাবা তার গ্রহণযোগ্যতা তৈরি করতে পেরেছে।

চীনের অনলাইন ব্যবসার অনেকটাই আলিবাবার নিয়ন্ত্রণে। প্রতিষ্ঠানটির তাওবাও প্ল্যাটফর্ম ভোক্তা ও ভোক্তা বাজারের ৯০ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়া টিমল প্ল্যাটফর্ম ব্যবসায়ী ও ভোক্তা বাজারের প্রায় অর্ধেকটা নিয়ন্ত্রণ করে।

সম্প্রতি আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড জে ট্রাম্পের মধ্যে একটি বৈঠক হয়। সেখানে যুক্তরাষ্ট্রে ১০ লাখ কর্মসংস্থানের সৃষ্টির ঘোষণা দেন জ্যাক। বিশ্লেষকরা মনে করছেন, এতে করে আলিবাবার সুনাম ও রাজনৈতিক ঝুঁকি দুই-ই কমেছে।

তথ্যমতে, ডিসেম্বর প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটির ডিজিটাল মিডিয়া ও বিনোদন খাতের রেভিনিউ ২৭৩ শতাংশ বেড়ে ৫৮৫ মিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে।

ওই সময় আলিবাবার মূল (কোর) ব্যবসা ইউনিট আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪৫ শতাংশ বেড়ে ছয় দশমিক সাত বিলিয়ন ডলার হয়েছে।