কোম্পানি সংবাদ

রেনাটা ও প্রাইম ফাইন্যান্সের ঋণমান নির্ণয়

অনেক বছর ধরে গাড়ি ব্যবসাটা ধোঁয়াশার মধ্য দিয়ে চলছে। বিশেষ করে এ জায়গাটায় সঠিকভাবে কোনো কাজ হয়নি। এখানে সঠিক নীতিমালা থাকা দরকার। অর্থাৎ গাড়ির দামের ক্ষেত্রে একটা নীতিমালা দরকার। এ বিষয়গুলোর প্রতি বিআরটিএর বিশেষ নজর নেওয়া উচিত। গতকাল এনটিভির মার্কেট ওয়াচ অনুষ্ঠানে বিষয়টি আলোচিত হয়। হাসিব হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বারভিডার মহাসচিব মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান এবং এএফপির ব্যুরো চিফ শফিকুল আলম।
মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান বলেন, আসন্ন বাজেটে গাড়ি ব্যবসায়ী সংগঠন বারভিডার অনেক দাবি রয়েছে। বর্তমানে গাড়ির বিক্রি অনেক কমে গেছে; কারণ অ্যাপসভিত্তিক বিশেষ করে উবার ও পাঠাও প্রভৃতি অ্যাপসগুলো আসায়। যাদের ব্যক্তিগত একটা বা দুটো গাড়ি রয়েছে, তারা এখন উবার ও পাঠাও হিসেবে ব্যবহার করছে গাড়িগুলো। ফলে ভোক্তারা উবার ও পাঠাও সুবিধা পাওয়ায় গাড়ি কেনার প্রতি ঝোঁক কম।
তিনি আরও বলেন, দেশ ও ঢাকা শহর বাঁচাতে হলে আসন্ন বাজেট রাজস্ব, পরিবেশ, গরিব এবং ভোক্তাবান্ধব হতে হবে। গাড়ি আমদানির ক্ষেত্রে ট্যাক্সের পরিমাণ কমাতে হবে। অর্থাৎ ট্যাক্সের পরিমাণ কম হলে গাড়ি আমদানি বেশি করা যাবে, কম দামে ভোক্তারা গাড়ি কিনতে পারবে এবং সরকার বেশি রাজস্ব আয় করতে পারবে। যদি ট্যাক্সের পরিমাণ কমানো না হয়, তাহলে গাড়ি বিক্রির পরিমাণ কমে যায় এবং রাজস্ব আয়ও কমে যায়। ২০১৭-১৮ সালে প্রায় ৩৭ হাজার কোটি টাকা ট্যাক্স দেওয়া হয়েছে। এ বছর ট্যাক্সের পরিমাণ কিছুটা কমে যাবে।
শফিকুল আলম বলেন, গাড়ির দাম যে হারে বাড়ছে সে হারে কিন্তু করের পরিমাণ বাড়েনি। আসলে এ খাতে অনেক বছর ধরে পলিসিগত কিছু সমস্যা রয়েছে। ২০১০ সালে যে গাড়িগুলোর দাম ১০ লাখ থেকে ১২ লাখ টাকা ছিল, সেই গাড়ি বর্তমানে ৪০ লাখ টাকার নিচে পাওয়া যায় না। সত্যিকার অর্থে ট্যাক্সের পরিমাণ কমানোর পর এর দাম হওয়া উচিত ছিল ছয় থেকে সাত লাখ টাকা কিন্তু সেখানে বেড়েছে প্রায় চারগুণ টাকা। আসলে এখানে বিষয়গুলো সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হয় না। ২০১৭-১৮ সালে দেশে গাড়ি বিক্রি হয়েছে প্রায় ৪০ হাজার। এখানে ট্যাক্স সুবিধাকে কেন্দ্র করে গাড়ি ব্যবসায়ীরা কত টাকার মালিক হচ্ছেন তার সঠিক তথ্য নেই।
তিনি আরও বলেন, অনেক বছর ধরে গাড়ি ব্যবসাটা ধোঁয়াশার মধ্যে চলছে। বিশেষ করে এ জায়গাটায় সঠিকভাবে কোনো কাজ হয়নি। এখানে সঠিক নীতিমালা থাকা দরকার। অর্থাৎ গাড়িগুলোর দামের ক্ষেত্রে একটা নীতিমালা দরকার। এ বিষয়গুলোর প্রতি বিআরটিএর নজর নেওয়া উচিত। গাড়ির মূল্য নির্ধারণ এবং এ খাতটির আমদানি-রফতানি কীভাবে নিয়ন্ত্রিত হয় সেটি ভালো করে দেখা উচিত। দেশে গাড়ির চাহিদা অনেক রয়েছে। কারণ গত বছর প্রায় ৩৭ হাজার কোটি টাকা ট্যাক্স দেওয়া হয়েছে।

শ্রুতিলিখন: শিপন আহমেদ

সর্বশেষ..