দুরে কোথাও

জোড়বাংলা মসজিদ

মুসলিম স্থাপত্যশৈলীর অনেক নিদর্শন ছড়িয়ে রয়েছে দেশের বিভিন্ন স্থানে। এমনই একটি দর্শনীয় স্থান ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের বারোবাজার। কালের বিবর্তনে টিকে থাকার পাশাপাশি গৌরবভরে ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে আছে এখানকার কীর্তিগুলো। এগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি জোড়বাংলা মসজিদ। এ বিষয়ে জানাচ্ছেন মো. হাসানুজ্জামান পিয়াস

এক গম্বুজবিশিষ্ট মসজিদ এটি। এর আরেক নাম জোড়বাংলা ঢিবি। জোড়বাংলা মসজিদের আকৃতি বর্গাকার। মসজিদের উত্তরে রয়েছে একটি বড় পুকুর। পুকুরটির নাম অন্ধপুকুর। মসজিদের প্রবেশপথ থেকে পুকুর পর্যন্ত রয়েছে ইটের সিঁড়ি। ধারণা করা হয়, মুসল্লিদের জন্য প্রয়োজনীয় পানীয়জল ও ওজু করার জন্য সুলতান মাহমুদ শাহের শাসনামলে পুকুরটি খনন করা হয়।

১৯৯৩ সালে প্রতুতত্তে¡র সন্ধানে বারোবাজারে খননকাজ শুরু হলে মাটির নিচে চাপা পড়ে থাকা জোড়বাংলা মসজিদটি আবিষ্কার হয়। মসজিদটি প্রতœতত্ত অধিদফতরের তালিকাভুক্ত হয়। আবিষ্কারের পর মসজিদটির পাশে স্থানীয়রা কিছু কবর খুঁজে পান।

ধারণা করা হয়, ৮০০ হিজরি সনে আলাউদ্দিন হুসাইন শাহের পুত্র শাহ্ সুলতান মাহমুদ মসজিদটি নির্মাণ করেন। প্রত্নতত্ত অধিদফতরের আবিষ্কারের পর মসজিদটিতে পুনরায় সামান্য সংস্কার কাজ করা হয়। মসজিদটি ১১ ফুট উঁচু একটি প্ল্যাটফর্মের ওপর অবস্থিত। এর পশ্চিম দেয়ালে নানা আকৃতির নকশা পাওয়া যায়। অর্ধাবৃত্তাকার আকৃতির তিনটি মেহরাব রয়েছে জোড়বাংলা মসজিদে। মেহরাবগুলোয় পোড়ামাটির ফলকে ফল ও নানা ধরনের নকশা চোখে পড়ে। মসজিদের প্রবেশপথ উত্তর-পূর্ব কোণে। মসজিদের পূর্ব পাশে তিনটি খিলান সংযুক্ত প্রবেশপথ রয়েছে। চার কোণায় আট কোণবিশিষ্ট চারটি কারুকাজ করা টাওয়ার রয়েছে। মসজিদের কেন্দ্রীয় মেহরাবে ফুল ও লতাপাতার পোড়ামাটির কাজ লক্ষ করা যায়। মসজিদটি মুসলিম স্থাপত্যের এক নয়নাভিরাম ও অনন্য উদাহরণ।

জোড়বাংলা মসজিদটি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজারে অবস্থিত। যশোর থেকে বারোবাজারের দূরত্ব ১৭ কিলোমিটার। রাজধানী থেকে বিভিন্ন পরিবহনের এসি ও নন-এসি বাসে চড়ে সরাসরি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় পৌঁছানো সম্ভব। ঝিনাইদহ হয়ে কালীগঞ্জ যাওয়ার দূরপাল্লার বাসের মধ্যে রয়েছে ঝিনাইদহ লাইন, দর্শনা ডিলাক্স, চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্স, রয়েল ও সোনার তরী। চাইলে ট্রেন কিংবা বিমানযোগেও যেতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে যশোর নামতে হবে। যশোর থেকে সরাসরি বাস বা সিএনজি অটোরিকশায় বারোবাজার যেতে পারেন।

 

সর্বশেষ..